কক্সবাজারখেলাধুলা

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ দলে কক্সবাজারের হাসান মুরাদ

হাসান মুরাদ

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী : কক্সবাজারের সন্তান হাসান মুরাদ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট দলে জায়গা করে নিয়েছেন। বিসিবি’র ঘোষিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ১৫ জন খেলোয়াড়ের স্কোয়াড (আবশ্যিক খেলোয়াড়) এর তালিকায় যেসব যুবা ক্রিকেটাররা স্থান পেয়েছে, কক্সবাজারের গর্বের ধন হাসান মুরাদ তাদের অন্যতম একজন। ২০২০ সালের জানুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত হবে যুবাদের এই বিশ্বকাপ ক্রিকেট।

দক্ষিণ আফ্রিকায় আগামী বছরের ১৭ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ। যুবাদের এ টুর্নামেন্ট সামনে রেখে রোববার ২২ ডিসেম্বর ১৫ জনের এই স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এছাড়াও স্ট্যান্ডবাই রাখা হয়েছে আরও ৬ ক্রিকেটারকে।

বিসিবির ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ৩ জানুয়ারি বিশ্বকাপ খেলতে বাংলাদেশ ত্যাগ করবে অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় ক্রিকেট দল। পরের দিন দক্ষিণ আফ্রিকায় পৌঁছানোর কথা তাদের। বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলার আগে চারটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশের যুবারা। এর মধ্যে আফগানিস্তান, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের যুবাদের মুখোমুখি হবে অনূর্ধ্ব-১৯ দল। ১৮ জানুয়ারি পচেফস্ট্রুমে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে অধিনায়ক আকবর আলীর দল। বিশ্বকাপের ‘সি’ গ্রুপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ পাকিস্তান, স্কটল্যান্ড ও জিম্বাবুয়ে।

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ স্কোয়াড খেলোয়াড়েরা হলো:

আকবর আলী (অধিনায়ক), তৌহিদ হৃদয় (সহ-অধিনায়ক), তানজীদ হাসান, পারভেজ হোসেন, হাসান মুরাদ (কক্সবাজার), প্রান্তিক নওরোজ, মাহমুদুল হাসান, শাহাদত হোসেন, শামীম হোসেন, মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী, তানজীম হাসান, অভিষেক দাস, শরিফুল ইসলাম, শাহীন আলম ও রাকিবুল হাসান।

স্ট্যান্ডবাই ক্রিকেটারেরা হচ্ছেন : অমিত হাসান, মেহরাব হাসান, আশরাফুল ইসলাম, মিনহাজুর রহমান, রুবেল মিয়া, আসাদুর রহমান।

হাসান মুরাদের সংক্ষিপ্ত জীবনী :

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের দক্ষিণ মুহুরী পাড়ায় (শহরের লিংক) রোডের দক্ষিণে) ২০০১ সালের ১ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন কক্সবাজারের গৌরব, ক্রিকেটে বিশ্বকাপ যুবাদের দলে স্থান করে নেওয়া হাসান মুরাদ। হাসান মুরাদের পিতার নাম-নাজিম উদ্দিন। মাতা-রাশেদা বেগম। ৪ ভাইয়ের মধ্যে হাসান মুরাদ দ্বিতীয়। কক্সবাজার সরকারি কলেজের পেছেনে অবস্থিত কলেজিয়েট স্কুল থেকে প্রাথমিক পড়াশোনা করেছেন। এরপর কক্সবাজার বায়তুশ শরফ জব্বারিয়া একাডেমি হতে ৬ষ্ঠ শ্রেণি পাশ করেছেন। ২০১২ সালের শুরুতে সপ্তম শ্রেণি হতে বিকেএসপিতে (বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান) উত্তীর্ণ হয়ে অপ্রতিরোধ্য হাসান মুরাদ আর পেছনে থাকাননি। অদম্য গতিতে শুধু সামনে এগিয়ে চলেছে। বিকেএসপি থেকেই ২০১৭ সালে এসএসসি ও ২০১৯ সালে এইসএসসি পাশ করেছেন। এখন বিকেএসপি’র মাধ্যমেই অনার্সে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু করেছেন। ২০১২ সালে বিকেএসপি’তে যোগদানের পর থেকে বয়স ভিত্তিক জাতীয় পর্যায়ের সব খেলায় অংশ নিয়েছে আমাদের হাসান মুরাদ। ২০১৯ সালে ক্রিকেটের জাতীয় প্রিমিয়ার লিগে খেলেছেন সফলতার সাথে। এ বা’হাতি স্পীনার ক্রিকেটের প্রিমিয়ার লিগে ২২ টি উইকেট খেয়ে পুরো প্রিমিয়ার লিগে সেরা স্পীনার হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন। পেয়েছেন পুরো প্রিমিয়ার লিগে চতুর্থ নম্বর বোলারের স্বীকৃতি। ২০২০ সালে প্রিমিয়ার লীগে খেলার জন্য বিকেএসপির হয়ে ইতিমধ্যে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। বর্তমানে বিসিবি’র হয়ে জাতীয় ক্রিকেট অনুর্ধ্ব-১৯ দলের গত ২০ দিন ধরে প্রস্তুতি ক্যাম্পে রয়েছেন বগুড়াতে। ক্রিকেট অনুর্ধ্ব-১৯ জাতীয় দলের হয়ে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে গত সেপ্টেম্বর মাসে নিউজিল্যান্ড অনুর্ধ্ব-১৯ জাতীয় দলের বিরুদ্ধে হাসান মুরাদ খেলেছেন কৃতিত্বের সাথে। দেশের মাটিতে শ্রীলঙ্কার সাথে সহ দেশের শক্তিশালী বিভিন্ন ক্রিকেট দলের বিরুদ্ধে খেলেছেন মাত্র ১৮ বছর বয়সী কক্সবাজারের হাসান মুরাদ।

কক্সবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অনুপ বড়ুয়া অপু জানান, অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট দলে জায়গা করে নেওয়া কক্সবাজারের সন্তান হাসান মুরাদ কক্সবাজার ক্রিকেট লীগেও খেলেছে। তাঁর মতে, খেলার প্রতি তাঁর একাগ্রতা, নিয়মানুবর্তিতা হাসান মুরাদকে আজ এতটুকু নিয়ে গেছে।

কক্সবাজার ক্রিকেট আম্পায়ার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও হাসান মুরাদের শিক্ষক জাহেদুর রহমান শামীম বলেন, ছোটবেলা থেকেই হাসান মুরাদের ক্রিকেটের প্রতি আগ্রহ ছিলো বেশী। অত্যন্ত মেধাবী, প্ররিশ্রমী ও আত্মপ্রত্যয়ী খেলোয়াড় হিসাবে হাসান মুরাদকে অভিহিত করে জাহেদুর রহমান শামীম বলেন, টার্গেটে না পৌঁছা পর্যন্ত তাঁকে কখনো দমানো যায়না।
এদিকে, হাসান মুরাদ তাঁর সফলতার জন্য তাঁর নাভিকাটা এলাকা কক্সবাজারের সকলের কাছে দোয়া ও আশীর্বাদ কামনা করেছেন।

প্রসঙ্গত, কক্সবাজার জেলার বাসিন্দা হিসাবে জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে অংশ নেওয়া সর্বপ্রথম খেলোয়াড় ছিলেন শহরের মুমিনুল হক। জাতীয় ক্রিকেট দলে জায়গা করে নেওয়া কক্সবাজার জেলার দ্বিতীয় খেলোয়াড় হলেন, কক্সবাজার শহরের দক্ষিণ মুহুরী পাড়া রেডিও স্টেশন গেইটের বাসিন্দা কক্সবাজারের ভূমি সন্তান হাসান মুরাদ।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন