অবশেষে মিয়ানমার থেকে ফিরলো ৯ জেলে

অনলাইন ডেস্ক : কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের সেন্টমার্টিন দ্বীপের নিকটবর্তী সাগর থেকে ধরে নেয়া ৯ বাংলাদেশী জেলেকে অবশেষে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর কাছে হস্তান্তর করেছে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি)। বুধবার (২৫ নভেম্বর) দুপুরে বিজিবি ও বিজিপি এর মধ্যে মিয়ারমারের মংডু শহরে এক পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠক শেষে এদের ফেরত দেয়া হয় বলে নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান।

তিনি বলেন, বুধবার সকালে টেকনাফ থেকে তার নেতৃত্বে একটি দল মিয়ারমারের উদ্দেশ্যে যাত্রা দেন। ওখানে পৌঁছার পর উভয় পক্ষের মধ্যে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে বাংলাদেশের ১০ সদস্যের নেতৃত্ব দেন তিনি নিজেই। অপর দিকে মিয়ানমারের ৭ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন বিজিপির ৪ নম্বর ব্রাঞ্চের অধিনায়ক লে. কর্ণেল জউ লিং অং।

তিনি জানান, গত ১০ নভেম্বর বিকেল তিনটার দিকে নাফ নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় মাছ ধরার সময় ইঞ্জিন বিকল হয়ে ভাসমান অবস্থায় মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপির) সদস্যরা টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ ঘোলাপাড়ার মোহাম্মদ আমিনের মালিকানাধীন একটি নৌকা ও ৯ জেলেকে ধরে নিয়ে যায়। ঘটনার পর বিজিবির পক্ষ থেকে বাংলাদেশী জেলে ও নৌকা ফেরত চেয়ে একাধিকবার চিঠি পাঠানো হয়েছে। শেষ পর্যন্ত জেলেদের তারা ফেরত দিতে বাধ্য হওয়াই পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে আলোচনার পর ৯ জেলেকে ফেরত পাঠানো হয়। এদের দুপুরে বাংলাদেশে নিয়ে আসা হয়েছে। ফেরত আনা জেলেরা হলেন, নুরুল আলম, ইসমাইল প্রকাশ হোসেন, মো. ইলিয়াছ, মো. ইউনুছ, মোহাম্মদ আলম কালু, সাইফুল, সলিম উল্লাহ, নুর কামাল, লালু মিয়া। ফেরত আনা জেলেদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।