আন্তর্জাতিক

ইরানে ট্রাম্পের হামলার ক্ষমতা খর্ব করতে সিনেটে প্রস্তাব পাস

ডোনাল্ড ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যেন ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়তে না পারেন সেজন্য তার যুদ্ধ-ক্ষমতা কমাতে একটি প্রস্তাব পাস করেছে মার্কিন পার্লামেন্টর উচ্চকক্ষ সিনেট।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার এ ভোট অনুষ্ঠিত হয়। ওই প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছেন ২২৪ জন এবং বিপক্ষে ১৯৪ জন ভোট দিয়েছেন। খবর এএফপির।

ইরানের সর্বোচ্চ সামরিক কমান্ডার কাসেম সোলাইমানির গাড়িবহরে মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র হামলা ও তাকে হত্যার ঘটনায় ফুঁসে উঠেছে পুরো দেশ।

এর প্রতিশোধ সরূপ ইরাকের দুইটি মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলাও চালিয়েছে ইরান। এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে কোনো ক্ষয়ক্ষতির কথা স্বীকার করা না হলেও প্রায় ৮০ জন মার্কিন সৈন্য নিহতের দাবি করেছে ইরান।

তবে উভয় পক্ষই তাদের হামলার পর ‘যুদ্ধ চাই না’ বললেও ইতোমধ্যে এই দুই দেশের মধ্যে চলছে যুদ্ধের পূর্ববর্তী অবস্থা।

এর ফলে ইরানের বিরুদ্ধে মার্কিন সশস্ত্র বাহিনীকে ব্যবহারের ক্ষেত্রে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অবশ্যই কংগ্রেসের অনুমোদন নিতে হবে।

প্রস্তাবনায় বলা হয়, মার্কিন কংগ্রেসের পক্ষ থেকে পরবর্তীতে কোনো অনুমোদন না পেলে ৩০ দিনের মধ্যে ইরানের বিরুদ্ধে সব ধরনের সামরিক পদক্ষেপ নেয়া বন্ধ করতে হবে ট্রাম্পকে।

তবে রিপাবলিকান অধ্যুষিত সিনেট সদস্যদের অধিকাংশই ট্রাম্প সমর্থক হওয়ায় সেখানে এই প্রস্তাবনা পাসের ক্ষেত্রে বেশ বেগ পেতে হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এই প্রস্তাবনা উত্থাপনের আগে এক বিবৃতিতে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেছিলেন, আমেরিকার জনগণকে নিরাপদ রাখতে, ইরানের সঙ্গে উত্তেজনা কমিয়ে আনতে ও মধ্যপ্রাচ্যের স্থিতিশীলতা নিশ্চিত করতে ট্রাম্পের যে কোনো সঙ্গতিপূর্ণ কৌশল নেই, তা পরিষ্কার করেছেন প্রেসিডেন্ট নিজেই।

পরে প্রতিনিধি পরিষদের নারী সদস্য এলিসা স্লটকিনের নেতৃত্বে এই প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়।