উখিয়ায় যৌতুক না পেয়ে গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা!

ফারুক আহমদ, উখিয়া : কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার জালিয়া পালং ইউনিয়নের জুম্মাপাড়া গ্রামে যৌতুকলোভী পাষণ্ড স্বামীর নির্দয় নির্যাতনে ছালেহা বেগম নামক এক সন্তানের জননী নিহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার।

জানা যায় রামু উপজেলার খুনিয়া পালং ইউনিয়নের পূর্ব গোয়ালিয়া গ্রামের আব্দুস সালামের কন্যা ছালেহা বেগমের সাথে আব্দুল আজিজের বিবাহ হয়।
অভিযোগে প্রকাশ বিবাহের পর থেকে যৌতুকের জন্য শারীরিক নির্যাতন করে আসছিল স্ত্রী ছালেহাকে।
গত শনিবার যৌতুকের দাবিতে পাষণ্ড স্বামী অমানুষিক নির্যাতন করে স্ত্রীকে।

সারাদিন স্বামী ও শ্বশুর  বাড়ির সদস্যদের নির্দয় নির্যাতনের আঘাতে স্ত্রী সালেহা অজ্ঞান হয়ে পড়ে। রাতে মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার গৃহবধূ সালেহা বেগম কে মৃত্যু ঘোষণা করে।

জালিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরির সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

এদিকে খুনিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মাবুদ জানান যৌতুকের দাবিতে পাষণ্ড স্বামী আব্দুল আজিজ সহ অন্যান্যরা অমানবিক শারীরিক নির্যাতন চালিয়ে ছসলেহা কে খুন করা হয়। তিনি আরো বলেন অসহায় পিতা আব্দুস সালাম কিছুদিন আগেও গরু ছাগল বিক্রি করে টাকা এনে মেয়ের জামাতা আব্দুল আজিজের হাতে তুলে দেন। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস সেই ঘাতক স্বামীর হাতে মেয়ে খুন হল।

এদিকে উক্ত ঘটনায় নিহতের পরিবার মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিয়েছে বলে জানা গেছে।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।