উখিয়াশিক্ষাঙ্গন

উখিয়ায় শহীদ এটিএম জাফর আলম কলেজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন  

শহীদ এটিএম জাফর আলম কলেজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন। ছবি: রাইজিং কক্স

ফারুক আহমদ, উখিয়া :  উখিয়ায় শহীদ এটিএম জাফর আলম কলেজের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে। বুধবার দুপুর ১টায় হলদিয়া পালং ইউনিয়নের রুমখা পালং ক্লাস পাড়া কলেজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন।

এ উপলক্ষে আয়োজিত  উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শহীদ এটিএম জাফর আলমের ছোটভাই চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ শাহ আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন ইউএনএইচসিআরের লাইভলি হোডস অফিসার সুব্রত কুমার চক্রবর্তী, উন্নয়ন সংস্থা ব্রাক হেড অফিসের মানবিক সহায়তা কর্মসূচির আব্দুস সালাম ও উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ চৌধুরী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আমিমুল আহসান খান উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রায়হানুল ইসলাম মিয়া উখিয়া উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম উখিয়া ডিগ্রী কলেজের অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী ভালুকিয়া পালং উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ লিয়াকত আলী  ও  বিশিষ্ট শিক্ষা অনুরাগী ও দাতা মনির আহমদ।

প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন বলেন  স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রথম প্রহরে হানাদার বাহিনীর হাতে প্রথম শহীদ হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র  এটিএম জাফর আলম। তিনি যেমন দেশ মাতৃকার টানে আত্মহুতি দিয়েছে ঠিক তেমনি এ কলেজটি শিক্ষা প্রসারে  এলাকায় মাইলফলক হয়ে থাকবে। এ মহৎ উদ্যোগ শহীদ পরিবারে দেশ প্রেমের বিরল দৃষ্টান্তর। আজকের এই শুভ দিনে শহীদ এটিএম জাফর আলমের নামে কলেজটি উদ্বোধন করতে পেরে তিনি নিজেও অভিভূত হয়েছেন। আর এটি সম্ভব হয়েছে এলাকার কৃতিসন্তান সাবেক কেবিনেট সচিব ও বর্তমানে বিশ্ব ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক  মোঃ শফিউল আলমের একান্ত প্রচেষ্টায়।

জেলা প্রশাসক আরো বলেন বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ২০৪১ সালের ভিশন বাস্তবায়নে উন্নত বাংলাদেশ চাই এমন স্লোগানে শিক্ষা এগিয়ে নিতে হবে। তাই এ কলেজকে সকলকে সার্বিক সহযোগিতা করার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান।

সভাপতির বক্তব্যে চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ শাহ আলম বলেন আমাদের পরিবারে এটিএম জাফর আলম সবার বড় ছিলেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলে স্বাধীনতা যুদ্ধে প্রথম প্রহরে পাকবাহিনীর হাতে শহীদ হন। আমরা শহীদের স্মরণে এ কলেজটি যাত্রা শুরু করেছি। এর পাশাপাশি শহীদ এটিএম জাফর আলম ডায়াবেটিক হাসপাতাল, শহীদ এটিএম জাফর আলম মাল্টিমিডিয়া টেকনিক্যাল কলেজ, শহীদ এটিএম জাফর আলম স্কুল প্রতিষ্ঠাসহ বিভিন্ন দাতব্য প্রতিষ্ঠান চালু করা হয়েছে ।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন আজিজুর রহমান।
এদিকে পরে  প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি ইউএনএইচসিআরের অর্থায়নে উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক এর বাস্তবায়নে শহীদ এটিএম জাফর আলম স্কুলের  নির্মাণাধীন নতুন ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালের ২৫শে মার্চের কালরাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাতে নিহত হন কক্সবাজারের কৃতী সন্তান, তৎকালীন ইকবাল হলের আবাসিক ছাত্র শহীদ এটিএম জাফর আলম, যিনি প্রখর মেধার স্বাক্ষর রেখে পাকিস্তানি সিভিল সার্ভিসে নাম লিখিয়েছিলেন। তার এ মহান আত্মত্যাগের স্বীকৃতিস্বরূপ তাকে স্বাধীনতা পুরষ্কারে ভূষিত করা হয়। তারই সহোদয়, বিশ্বব্যাংকের বিকল্প নির্বাহী পরিচালক ও সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম উখিয়ার পশ্চাৎপদ জনগোষ্ঠীকে শিক্ষার আলোয় উদ্ভাসিত করার প্রয়াসে প্রতিষ্ঠা করেছেন শহীদ এটিএম জাফর আলম স্কুল এন্ড কলেজ।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

Comment here