উখিয়াফেসবুক থেকে

উখিয়ায় শিক্ষা কর্মকর্তাকে দেখে ঝালমুড়ি বিক্রেতার পালানোর চেষ্টা!

মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রায়হান ইসলামের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টা করছে এক ঝালমুড়ি বিক্রেতা। ছবি: সংগৃহীত

রাইজিং কক্স : উখিয়া উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে  অধ্যয়নরত কোমলমতি (শিশু) শিক্ষার্থীদের টার্গেট করে অস্বাস্থ্যকর খাদ্য (নিম্নমানের চকলেট, চিপস, আচার, ঝাল মুড়ি) বিক্রি করছে হকারেরা। সচেতন মহলের ধারণা অস্বাস্থ্যকর এ খাবার খেলে যেকোন মূহুর্তে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় উপজেলার মরিচ্চা পালং উচ্চ বিদ্যালয় পরিদর্শনে যান উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রায়হান ইসলাম। তার উপস্থিতি টের পেয়ে ঝালমুড়ি বিক্রেতা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এমন তথ্য পাওয়া যায় রায়হান ইসলামের ফেসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে জানা যায়। তিনি কোমলমতি শিশুদেরকে বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে মায়ের হাতের রান্নার বাইরে অন্য কোন খাবার পরিহার করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান।

রাইজিং কক্স ডটকম’র পাঠকদের জন্য স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলোঃ

উখিয়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রায়হান ইসলামের ফেসবুক স্ট্যাটাস।