উখিয়াখেলাধুলা

উখিয়া ইউএনও কাপ ফুটবলের চ্যাম্পিয়ন জালিয়াপালং

ছবি: রাইজিং কক্স

এম. সালাহ উদ্দিন আকাশ : উখিয়া উপজেলা প্রশাসন ও ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে অনুষ্ঠিত বহুল আলোচিত ইউএনও কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে পাতাবাড়ী শৈলের ঢেবা বাছাই একাদশকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে জালিয়াপালং ইউনিয়ন ফুটবল দল ।

শুক্রবার বিকাল ৩ টায় উখিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় খেলার মাঠে এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

ছবি: রাইজিং কক্স

উখিয়া উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়ন থেকে ১০ টি দল এই টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছিল। সর্বশেষ শুক্রবার ফাইনাল ম্যাচে জালিয়াপালং ইউনিয়ন ফুটবল দল ১-০ গোলে পাতাবাড়ি শৈলেরঢেবা বাছাই একাদশকে পরাজিত করে উখিয়া ইউএনও কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০১৯ জিতল। ম্যাচের একমাত্র গোলটি আসে আব্দুল্লাহর পা থেকে।

২০১৭ সালের আগস্ট থেকে পৃথিবীর অন্যতম বৃহৎ শরণার্থী জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দেওয়া উখিয়ার বাসিন্দাদের মধ্যে সামাজিক সংহতি এবং যুবসমাজকে নেতৃত্বদানে উৎসাহিত করতে সরকারের স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন এই টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছে।

ছবি: রাইজিং কক্স

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  মোঃ নিকারুজ্জামান সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ দলের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন। সমাপনী অনুষ্ঠানে সহকারি কমিশনার ভূমি আমিমুল এহসান খান, উখিয়া থানার ওসি আবুল মনসুর, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন শাহীন, রাজাপালং ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, জালিয়াপালং ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মুজিবুল হক আজাদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মকবুল হোসেন মিথুন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রায়হানুল ইসলাম মিয়া, সমবায় অফিসার কবির আহমদ, উখিয় প্রেসক্লাব সভাপতি সরওয়ার আলম শাহীন, একটি বাড়ি একটি খামারের সমন্বয়কারী আবদুল করিমসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন ।
ছবি: রাইজিং কক্স

এই আয়োজনে সহযোগিতা করায় আইওএম-এর সহযোগী সংস্থা অ্যাকশন এইড বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানিয়ে ইউএনও মোঃ নিকারুজ্জামান বলেন, “সামাজিক সংহতি এবং যুবসমাজকে নেতৃত্বদানে উৎসাহিত করতে উপজেলা প্রশাসন সর্বদা সচেষ্ট এবং এমন আয়োজন ভবিষ্যতে আরো হবে।”
ছবি: রাইজিং কক্স

উল্লেখযোগ্য সংখ্যক দর্শকদের পাশাপাশি সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উখিয়া ইউএনও কার্যালয়, আইওএম এবং অ্যাকশন এইড বাংলাদেশের প্রতিনিধিবৃন্দ। বিজয়ী দলটি ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের সাথে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলবে বলে জানান আয়োজকবৃন্দ।
ছবি: রাইজিং কক্স

আইওএম বাংলাদেশে মিশনের উপ-প্রধান ম্যানুয়েল পেরেইরা বলেন, “আইওএম এই উদ্যোগে যোগ দিতে পেরে খুব আনন্দিত এবং এমন আরও আয়োজনের মাধ্যমে স্থানীয় যুবকদের সাথে থাকতে চায়। একটি বুদ্ধিমান শরীর ও একটি বুদ্ধিমান মন একটি সুস্থ এবং সংহতিশীল সম্প্রদায়ের স্তম্ভ এবং এই ফুটবল টুর্নামেন্টটি এমন সম্প্রদায়ে অবদান রাখার বাহন হিসেবে প্রতীয়মান হয়েছে।”

এই টুর্নামেন্টটি উখিয়ার যুব সমাজের উৎসাহ দিয়েছে এবং স্থানীয় জনগোষ্ঠীরাও বিনোদিত হয়েছে। এ ধরণের আয়োজন আরও করা দরকার বলে মনে করেন স্থানীয়রা।

ছবি: রাইজিং কক্স

জালিয়াপালং ইউনিয়ন ফুটবল দল -এর অধিনায়ক মাহমুদ রাশেদ বলেন, “বহুল প্রতীক্ষিত এই টুর্নামেন্টের জন্য উখিয়া ইউএনও কার্যালয়কে ধন্যবাদ। ভবিষ্যতে আমরা কক্সবাজারের উখিয়া এবং টেকনাফে এ ধরণের আরও আয়োজন দেখতে চাই যার মাধ্যমে যুবসমাজের মধ্যে নেতৃত্বগুণ এর মত নানা সামাজিক গুণাবলির প্রসার ঘটবে।“

এর আগে, গত ২৫ নভেম্বর কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন