একাত্তরের সাতই মার্চ

সুলতান আহমেদ

একাত্তরের সাতই মার্চে ঢাকার রেসকোর্স মাঠে
দশলক্ষাধিক উত্তপ্ত জনসমাবেশে
বঙ্গবন্ধু বজ্রকণ্ঠে উদ্দীপ্ত এক ভাষণ প্রদান করেন
অসীম সাহসে অকুতোভয় বীরের বেশে।

“এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম
এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম”
এটা ছিল নিষ্ঠুর গণহত্যার আগ্রাসী পূর্বাহ্নে
নয়মাসের মুক্তিযুদ্ধের এক আগাম পয়গাম।

সাতই মার্চের বজ্রকণ্ঠের সে প্রত‍্যয়ী ঘোষনা
বৃথা যায়নি, সৃষ্টি করে বিপুল উদ্দীপনা।

স্বাধীনতার চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে নয়মাস
লাখো বাঙালির রক্তের সাগরে ভেসে
লাল সবুজ পতাকার কাঙ্খিত স্বাধীনতা
পোড়ামাটির বাংলায় এসেছে অবশেষে।

সে ভাষণ অন‍্যতম শ্রেষ্ঠ ভাষণের মর্যাদায়
বিশ্বঐতিহ‍্যের তালিকায় পেয়েছে স্থান
বাঙালি বীর জাতি হিসেবে পেয়েছে বিশ্বে
অভূতপূর্ব বিরলতম এক মহান সম্মান।

জয়বাংলা,জয় বাঙালি জাতিরাষ্ট্রের জয়
সার্বভৌম মর্যাদায় ঠিকে থাকবে চির অক্ষয়।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।