খেলাধুলা

ওমরাহ করতে সৌদি আরবে সাকিব

সাকিব আল হাসান। ছবি: সংগৃহীত

ক্রীড়া ডেস্ক, রাইজিং কক্স : আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে বর্তমানে ক্রিকেটের বাইরে সাকিব আল হাসান। সময়টা কাজে লাগাতে গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে পবিত্র ওমরাহ পালন করতে সৌদি আরব গেলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার।

বিসিবির লজিস্টিক কর্মকর্তা ওয়াসিম খান এনটিভি অনলাইনকে এ ব্যাপারে বলেন, ‘বৃহস্পতিবার রাত দেড়টায় এমিরেটস এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে সৌদি আরবের উদ্দেশে রওনা হন সাকিব। একাই গেছেন তিনি। চার-পাঁচ দিনের মধ্যেই দেশে ফেরার কথা সাকিবের।’

জুয়াড়িদের প্রস্তাব গোপন করায় গত ২৯ অক্টোবর সাকিবকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। অবশ্য ভুল স্বীকার করায় সাজার মেয়াদ এক বছর কমেছে। সাকিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০১৮ সালের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত চার মাসের মধ্যে তিনবার ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পান সাকিব। কিন্তু একবারও তা বিসিবি বা আইসিসিকে জানাননি তিনি। তা কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হন তিনি।

আইসিসির দুর্নীতিবিরোধী ইউনিট আকসুর রায় অনুযায়ী আগামী ১২ মাস সব ধরনের ক্রিকেট থেকে বিরত থাকতে হবে সাকিবকে। এই সময়ে দুর্নীতিবিরোধী ইউনিট আকসুর বিভিন্ন শিক্ষামূলক কাজে অংশ নেবেন তিনি। ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর থেকে আবারও খেলায় ফিরতে পারবেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

সাকিবের নিষেধাজ্ঞা মেনে নিতে পারছেন না বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা। টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়কের শাস্তির খবর পাওয়ার পর ক্ষুব্ধ হন ভক্তরা। শাস্তি ঘোষণার রাত থেকেই দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ গড়ে তোলেন তাঁরা। এরপর পরিস্থিতি সামলাতে ও ভক্তদের শান্ত করতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বার্তা দেন সাকিব। নিজের কঠিন সময়ে ভক্তদের ভালোবাসার প্রশংসা করে সবাইকে ধৈর্য ধরে শান্ত থাকার অনুরোধ করেছেন এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।