কক্সবাজারের পর্যটন কেন্দ্রগুলো খুলছে ১৭ অগাস্ট

রাইজিং কক্স : করোনা সংক্রমণ রোধে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর আগামী ১৭ অগাস্ট থেকে সমুদ্র সৈকত ও হোটেল-মোটেলসহ কক্সবাজার শহরের পর্যটন কেন্দ্রগুলো শর্ত সাপেক্ষে সীমিত আকারে খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন।

বুধবার রাতে ভার্চুয়াল প্লাটফরমে অনুষ্ঠিত জেলা প্রশাসনের পর্যটন সেলের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত হয় বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন।

এর আগে গত ১ অগাস্ট বিনোদন কেন্দ্রগুলো খুলে দিতে জেলা প্রশাসনের পর্যটন সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান জাহিদ খানের নেতৃত্বে হোটেল-মোটেল ও পর্যটন খাত সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয় বলে জানান জেলা প্রশাসক।

করোনাভাইরাস মহামারীতে গত ১৮ মার্চ থেকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ও হোটেল-মোটেলসহ জেলার পর্যটন কেন্দ্রগুলো বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় প্রশাসন। এরপর লকডাউন ও সাধারণ ছুটি ঘোষণার সময়সীমা শেষ হলেও বন্ধ ছিল পর্যটন কেন্দ্রগুলো। এতে দীর্ঘ সাড়ে চার মাসেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ ছিল পর্যটকদের আনাগোনা।

কামাল হোসেন বলেন, নির্দিষ্ট কিছু শর্ত-সাপেক্ষে সীমিত আকারে সমুদ্র সৈকত ও হোটেল-মোটেলসহ কক্সবাজার পৌর এলাকা কেন্দ্রিক পর্যটন কেন্দ্রগুলো খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। তবে জেলার অন্যান্য বিনোদন কেন্দ্রগুলো পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত আপাতত বন্ধ থাকবে।

“এর আগে করণীয় নির্ধারণে জেলা প্রশাসনের পর্যটন সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে বিনোদন কেন্দ্রগুলো চালু করতে নীতিমালা তৈরি করেছে। এতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কীভাবে পর্যটন কেন্দ্রগুলো চালু করা যায় সেটির নির্দেশনা রয়েছে।”

জেলা প্রশাসক বলেন, “পর্যটন কেন্দ্রগুলো খুলে দিতে সেক্টর ভিত্তিক এসব নির্দেশনা তৈরি করা হয়েছে। এতে প্রতিটি সেক্টরের জন্য আলাদা আলাদা করে কিছু শর্ত আরোপের কথা উল্লেখ রয়েছে। এছাড়া নির্দেশনাগুলো বাস্তবায়ন কারা করবে তারও উল্লেখ রয়েছে। এগুলো যথাযথভাবে মানা হচ্ছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ ও ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের সংশ্লিষ্টরা তদারকি করবেন।”

তবে স্বাস্থ্যবিধিসহ নির্দেশনার অন্যান্য শর্তাবলী লংঘনকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান জেলা প্রশাসক।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।