‘কক্সবাজারের সংগীত ও নাট্যচর্চার ইতিবৃত্ত’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

'কক্সবাজারের সংগীত ও নাট্যচর্চার ইতিবৃত্ত' হাতে অতিথিসহ লেখক কালাম আজাদ।

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারের সংস্কৃতিচর্চার প্রধান বৈশিষ্ট্যই হচ্ছে তারুণ্য। স্বাধীনতার পূর্ব থেকেই সংস্কৃতি চর্চা কক্সবাজারের সাংস্কৃতিক উন্নয়নে গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা পালন করে আসছিল। যা স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে সঞ্চারিত হয়ে নতুন জীবনবোধে উজ্জীবিত করে তরুণ সমাজকে। তরুণেরা সংস্কৃতিকে সমাজ বদলের অন্যতম মাধ্যম হিসেবে বিবেচনা করে সংস্কৃতির মাধ্যমে সমাজ বিনির্মাণে ঝাঁপিয়ে পড়ে। প্রাণের তাগিদে, সংগীতকে ভালোবেসে, নাটককে ভালোবেসে সংস্কৃতির মাধ্যমে সমাজ পরিবর্তনের অঙ্গিকারে এ চর্চায় যুক্ত হন তারা। এ চর্চায় যারা যুক্ত আছেন তথা কক্সবাজারের সাংস্কৃতিক বিকাশের ইতিবৃত্ত নিয়ে রাইজিং কক্স এর নির্বাহী সম্পাদক কবি ও গবেষক কালাম আজাদের ‘কক্সবাজারের সংগীত ও নাট্যচর্চার ইতিবৃত্ত’ রচনা কক্সবাজারের সাংস্কৃতিক চর্চার ইতিহাসের মাইলফলক। এই বই পড়ার মাধ্যমে আজকের তরুণ প্রজন্মেরা সংস্কৃতি চর্চায় উৎসাহিত হবে।
৩ মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় কক্সবাজার পাবলিক লাইব্রেরির দৌলত ময়দানে অনুষ্ঠিত অমর একুশে বই মেলা মঞ্চে কবি ও গবেষক কালাম আজাদের গবেষণা গ্রন্থ ‘কক্সবাজারের সংগীত ও নাট্যচর্চার ইতিবৃত্ত’র মোড়ক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া ) আসনের সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিক এসব কথা বলেন।

কবি মানিক বৈরাগীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার পৌরসভার চার চার নির্বাচিত চেয়ারম্যান, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নুরুল আবছার, শব্দায়ন আবৃত্তি একাডেমির পরিচালক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জসীম উদ্দিন বকুল, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের কেন্দ্রিয় সদস্য, কক্সবাজার অমর একুশে বইমেলা-২০২১ উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব নাট্যজন এডভোকেট তাপস রক্ষিত, কক্সবাজার সমিল্লিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সত্যপ্রিয় চৌধুরী দোলন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজীবুল ইসলাম, সত্যেন সেন শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি খোরশেদ আলম, কক্সবাজার জেলা খেলাঘর আসরের সভাপতি আবুল কাসেম বাবু, কক্সবাজার পৌরসভার কাউন্সিলর আশরাফুল হুদা ছিদ্দিকী জামশেদ, কক্সবাজার জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ পাল বিশু, সত্যেন সেন শিল্পীগোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক মনির মোবারক প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, কবি অমিত চৌধুরী, কবি তৌহিদুল আলম, ড. মাহফুজুর রহমান আখন্দ, মোহাম্মদ আবুল কাসেম, কেন্দ্রিয় খেলাঘর সদস্য কবি এম. জসিম উদ্দিন, কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নাছির উদ্দিন, কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাম মোহন সেন, নাট্যজন সুশান্ত পাল বাচ্চু, এস এম জসিম, মোশতাক আহমদ, প্রমূখ।

ঢাকার জাগতিক প্রকাশন থেকে প্রকাশিত কক্সবাজারের সংগীত ও নাট্যচর্চার ইতিবৃত্ত বইটি কক্সবাজার অমর একুশে বইমেলার ইস্টিশন ও অনার্য পাবলিকেশন্স স্টলে পাওয়া যাচ্ছে। বইটি পাঠক সমাবেশ, বাতিঘর, প্রকৃতিসহ ঢাকার বিভিন্ন পুস্তক বিক্রেতা কেন্দ্রে, উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাব, কক্সবাজারে কবি অমিত চৌধুরী, মানিক বৈরাগী, মনির মোবারক এবং লেখকের কাছে (০১৮১৪৪৯৫৪৬৬) অথবা প্রকাশকের কাছে (০১৮৭০৪৭৩৬৮৫) ফোনে যোগাযোগ করেও সংগ্রহ করতে পারেন। এছাড়াও দেশের যেকোন প্রান্ত থেকে রকমারি.কম-এ অর্ডার করে বইটি সংগ্রহ করা যাবে।

উউল্লেখ্য, কালাম আজাদ উখিয়ার হলদিয়া পালং ইউনিয়নের বত্তাতলী গ্রামে আবদুল মালেক ও ছুবিয়া খাতুনের কৃতিসন্তান। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে স্নাতকোত্তর। ইতোমধ্যে তার গবেষণা গ্রন্থ ‘রাজাকারনামা’, ভাষা আন্দোলনে কক্সবাজার’ কক্সবাজারে বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধে আরাকানে বাঙালি শরণার্থী ’ পাঠকমহলে বেশ সাড়া পেয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সাংবাদিকতার পাশাপাশি তিনি মুক্তিসংগ্রাম, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন, স্বৈরাচার ও সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী আন্দোলন নিয়ে লেখালেখি করে আসছেন।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।