কোটবাজার-সোনারপাড়া সড়কের বেহাল দশা, জনদুর্ভোগ চরমে

সোহেল মাহমুদ : উখিয়া উপজেলার কোটবাজার থেকে সোনারপাড়া প্রায় সাড়ে পাঁচ কিলোমিটার সড়ক গাড়ি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।সামান্য বৃষ্টিতে সড়কে পানি জমে যাচ্ছে। প্রায় পুরো সড়কজুড়েই খানা-খন্দক, ছোটবড় গর্ত। তাই গাড়ি চালাতে হয় কচ্ছপ গতিতে! এমন বেহাল দশায় গাড়ী চালক ও যাত্রীদের ভোগান্তির শেষ নেই। খোদ জালিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের সামনেই শতাধিক ছোট-বড় গর্ত!

এটি উখিয়া উপজেলার অন্যতম ব্যস্ততম সড়ক এবং একমাত্র সৈকত রোড হিসেবে পরিচিত।কক্সবাজার সদর থেকে উখিয়া কিংবা টেকনাফ যাতায়াতে এই সড়কটি বেশি ব্যবহ্নত হয়।

এমতাবস্থায়, এই জরাজীর্ণ সড়কের মেরামত অতীব জরুরী হয়ে পড়েছে।

ভুক্তভোগী মানুষদের অভিযোগ, এনজিও এবং মালবাহি গাড়ির অত্যধিক চাপে সড়কটির এই করুন অবস্থা হয়েছে। তদুপরি রোহিঙ্গা ক্যাম্পভিত্তিক শতশত যানবাহনের চাপও রয়েছে।
নিয়মিত যাতায়াতকারী শফিউল করিম বলেন, এক প্রকার নিরুপায় হয়ে এই সড়ক দিয়ে চলাফেরা করছি। দ্বিগুন ভাড়াও গুনতে হচ্ছে।

এক সিএনজি চালকের সাথে আলাপকালে বলেন, ভাঙ্গাচোরা সড়কের কারনে গাড়ীর যে ক্ষতি হচ্ছে তা দ্বিগুন ভাড়া নিয়েও পুষানো সম্ভব নয়।

জালিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী বলেন, আজকে উখিয়া এলজিআরডি অফিসে গিয়েছিলাম। আগামীকাল ইউএনও অফিসে যাব। মানুষের কষ্ট লাঘবের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তিনি সবাইকে একটু ধৈর্য্য ধরার আহবান জানান।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।