বন্দর নগরীশিক্ষাঙ্গন

কোয়ারেনটাইনের জন্য ছাত্রীনিবাস দিল প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়

প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের একমাত্র ছাত্রী নিবাস

রাইজিং কক্স ডেস্ক : করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হিসেবে সন্দেহভাজনদের কোয়ারেনটাইনে রাখার জন্য নিজেদের তৈরি ছাত্রীনিবাসকে সাময়িকভাবে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করেছে বেসরকারি প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এবং উপাচার্য ড. অনুপম সেন সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে শনিবার (৪ এপ্রিল) এই সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে জেলা প্রশাসককে জানান।

প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির জনসংযোগ শাখা থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ছাত্রীনিবাসটিকে কোয়ারেনটাইন সেন্টার হিসেবে ব্যবহারের জন্য গ্রহণ করেছে এবং এ ব্যাপারে তাদের প্রক্রিয়া শুরু করেছে।

প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী জনসংযোগ কর্মকর্তা শামসুল আরেফীন জানিয়েছেন, নগরীর সাগরিকায় ৯ কোটি টাকা দিয়ে সিটি করপোরেশনের কাছ থেকে কেনা নিজস্ব ভূমিতে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের আটতলা ছাত্রীনিবাস নির্মিত হয়েছে। প্রতিটি ফ্লোরে পাঁচটি করে মোট কক্ষ আছে ৪০টি। এসব কক্ষে মোট ১৬০ জন ছাত্রীর থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিটি কক্ষের সঙ্গে লাগোয়া টয়লেট আছে। প্রতিটি ছাত্রীর জন্য আছে আলাদা খাট ও বিছানা, নিজস্ব কেবিনেট, পড়ার টেবিল, চেয়ার ও ড্রেসিং টেবিল।

দুই বছর আগে ছাত্রীনিবাস প্রস্তুত হলেও সেটি এখনো চালু হয়নি। কোয়ারেনটাইন কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য সেখানে পর্যাপ্ত সুবিধা আছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

এর আগে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ছাত্রীনিবাসকে কোয়ারেনটাইন কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য নির্ধারণ করেছিল। কিন্তু শিক্ষক ও স্থানীয়দের আপত্তির কারণে পরে আবার জেলা প্রশাসন সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করে। কিন্তু বেসরকারি প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্বেচ্ছায় তাদের ছাত্রীনিবাস জেলা প্রশাসনকে দিচ্ছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।