ক্রিকেটকে বিদায় বললেন রাজ্জাক-নাফীস

ক্রীড়া ডেস্ক : ক্রিকেটার হিসেবে দুইজনেরই ছিল সমৃদ্ধ ক্যারিয়ার- একজন বল হাতে আরেকজন ব্যাট হাতে। আব্দুর রাজ্জাক ও শাহরিয়ার নাফীস পেয়েছেন বোর্ডের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব। দায়িত্ব নেওয়ার আগে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় বললেন খেলোয়াড়ি জীবনকে।

রাজ্জাককে জাতীয় দলের নির্বাচক প্যানেলে যুক্ত করা হয়েছে, নাফীস হচ্ছেন ডেপুটি ক্রিকেট অপারেশন্স ম্যানেজার। শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সম্মেলন কক্ষে দুইজনই অবসরের ঘোষণা দেন। বিদায়বেলায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (কোয়াব) কাছ থেকে সংবর্ধনাও পেলেন।

সেই সাথে জানিয়ে রাখলেন আহ্বান- অন্যান্য ক্রিকেটাররাও যেন আনুষ্ঠানিকভাবেই বিদায় নিতে পারেন, আর সম্ভব হলে তা মাঠ থেকে।

রাজ্জাক বলেন, ‘আমাদের দেশে অনেক টেস্ট ক্রিকেটার ছিলেন। অনেকে এই সুযোগটাও পাননি। আমরা আশা করব এরকম প্রচলন আস্তে আস্তে তৈরি হবে যেন আমরা মাঠ থেকে বিদায় নিতে পারি। ভালোর শেষ নেই। ভালো হচ্ছে মাঠ থেকে বিদায় নেওয়া। আগে তো এরকম সুযোগও আসত না। হঠাৎ করে একজন খেলোয়াড় বলত আর খেলবে না। কেউ হয়ত জানতও না সে যে আর খেলবে না। এখন অন্তত মানুষ জানতে পারছে।’

এমন বিদায় সংবর্ধনা ছাড়াই খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি টেনেছিলেন অনেক ক্রিকেটার। নাফীস তাই কৃতজ্ঞতা জানাতে কার্পণ্য করেননি।

তিনি বলেন, ‘আমাদের চেয়েও বড় অনেক ক্রিকেটারের এই সৌভাগ্য হয়নি। বিসিবি ও কোয়াবকে ধন্যবাদ এরকম একটা আয়োজনের জন্য। যদি করোনা না থাকত আমরা খেলে বিদায় নিতে পারতাম। তারপরও আমাদের জন্য যতটুক করেছে আমরা কৃতজ্ঞ।’

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।