খুটাখালীতে বালু উত্তোলনে পাহাড় ধ্বসে শ্রমিকের মৃত্যু 

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীতে বালু উত্তোলন করতে গিয়ে পাহাড় ধ্বসে নুর কবির (২৮) নামের শ্রমিক নিহত হয়েছে। নিহত শ্রমিককে স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করেছে।

রবিবার (১৭জানুয়ারী) বিকেল উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নস্থ গোদারফাঁড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত শ্রমিক নুর কবির খুটাখালী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের জয়নগর পাড়ার বাসিন্দা।

স্থানীয়রা জানান, পাহাড় ধ্বসে নিহত শ্রমিক নুর কবির খুটাখালী এলাকার জৈনক জসিম ড্রাইভারের বাড়ীতে ভাড়াবাসা নিয়ে থাকে। সে মূলত রোহিঙ্গা নাগরিক। উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ৭-৮ পূর্বে স্বপরিবার নিয়ে পালিয়ে এসে খুটাখালীতে বসবাস করেন। নুরুল কবির পেশায় শ্রমিক হিসেবে বালু উত্তোলন কাজে জড়িত।

স্থানীয় এলাকাবাসী আরও জানান, বনবিভাগের জায়গায় দীর্ঘদিন যাবত খুটাখালী এলাকার আব্দু রহিমের ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালি উত্তোলন কাজে নিয়োজিত ছিল নিহত শ্রমিক নুর কবির। রবিবার বিকেলে ড্রেজার মেশিন দিয়ে খুটাখালী খালের গোদারফাঁড়ি নামক এলাকায় বালু উত্তোলন কাজ করতে গিয়ে হঠাৎ পাহাড় ধ্বসে তার শরীরে ওপর মাটি চাপা পড়ে। পরে বালি উত্তোলন কাজে নিয়োজিত অন্যান্য শ্রমিকেরা দীর্ঘ এক ঘন্টা সময় ধরে চেষ্টা করে মাটি সরিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে। পুলিশ খবর পেয়ে নিহতের মরদেহ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করেছে।

অপর দিকে, খুটাখালী ৬নম্বর ওয়ার্ডের স্থানীয় মেম্বার আনোয়ার হোসেনসহ কয়েকজন এলাকাবাসী জানায়, নিহত নুর কবিরের পূর্বে থেকে মৃগরোগ ছিল। হঠাৎ তার রোগটি উঠলে সে পানিতে পড়ে যায়। তবে সে খালের পাশে পাহাড়ে লাকড়ি কুড়াতে গিয়ে এই বিপদের সম্মুখিন হয়। এতে কোন ব্যক্তির দোষ নেই। তবে স্থানীয়দের দাবী প্রবাহমান খুটাখালী খালটি বনভূমির উপর দিয়ে আসায়, অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনকারীরা গোদারফাঁড়ি নামক পয়েন্টে খালের মধ্যে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে পাশ্বোক্ত খাল লাগোয়া পাহাড় কেটে পানিতে ফেলে। ওই খাল থেকে মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করে চলছে। বালু উত্তোলনের জায়গাটি সম্পূন্ন রিজার্ভ বনবিভাগের জায়গা।

পাহাড় ধ্বসে শ্রমিক নিহতের ব্যাপারে চকরিয়া থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, নিহত নুর কবিরের স্ত্রী নিজেই থানায় এসে লিখিত একটি অভিযোগ দিয়েছেন। তারা রোহিঙ্গা নাগরিক। ৭মাস ধরে খুটাখালী একটি বাড়ীতে আশ্রিত হিসেবে আছেন। তার স্বামী বনে লাকড়ির জন্য যায়। লাকড়ি নিয়ে আসতে খাল পারাপারের সময় হঠাৎ মৃগীরোগটি উঠলে সে পানিতে পড়ে যায়। এসময় তার পাশে কেউ না থাকায় সে মারা যায়। তবু আমি ঘটনার বিষয়ে একটি অপমৃত্যূ মামলা রেকর্ড করেছি। নিহতের মরদেহ সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে লাশ জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।