খেলাধুলাচকরিয়া

চকরিয়ায় ফুটবল খেলার মাঠ রক্ষায় বিক্ষোভ ও মানববন্ধন

রাইজিং কক্স ডেস্ক : কক্সবাজারের চকরিয়ায় উম্মুক্ত ফুটবল মাঠ জবর দখলের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে। শনিবার সকালে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে সংগঠিত এ ঘটনার প্রতিবাদে ওইদিন দুপুরে স্থাণীয় খেলোয়াড়রা চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সড়কে দীর্ঘ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে। মানববন্ধনে স্থানীয় খেলোয়াড়গন ছাড়াও এলাকার ক্রীড়া প্রেমি লোকজন অংশ নেয়। এসময় তারা খেলার মাঠ জবর দখলকারীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক প্রদক্ষেপ গ্রহনের দাবী ও মাঠ উদ্ধারের দাবীতে বিভিন্ন ধরনের শ্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ করে। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে মানববন্ধন কর্মসূচী প্রত্যাহার করে নেয় আন্দোলনকারীরা। ।

মানববন্ধনে নেতৃত্বদানকারী ফাসিয়াখালী ফুটবল একাদশ সমিতির নেতা আবু বক্কর, মো. শাকিল ও মো. হাছান বলেন,উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ছড়ারকুল এলাকার খেলার মাঠের জমিটি সরকারের ১ নম্বর খতিয়ানভুক্ত খাস জমি। চর ভরাট হওয়া ওই জমিকে খেলার উপযোগী মাঠ তৈরী করে দীর্ঘ দেড় যুগ ধরে ফুটবল খেলার মাঠ হিসাবে ব্যবহার করে আসছিল এলাকার ক্রীড়ামোদি যুবক-কিশোররা। এ মাঠকে ঘিরে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের একদল তরুন ফাঁসিয়াখালী ফুটবল একাদশ সমিতির ব্যনারে একটি সংগঠনও গড়ে তুলে। তখন থেকেই মাঠটির দেখভাল ও করে আসছিল সংগঠনটি। কিন্তু গত ২ বছর ধরে স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তি খেলার মাঠের জমিটি জবর দখল চেষ্টা করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার (১৭ আগষ্ট) সকালে খেলার মাঠটি জবরদখলে নেয়ার জন্য প্রভাবশালীরা ৪০-৫০জন লাঠিয়াল বাহিনীর মাধ্যমে দা, কিরিচ, ও কোদাল নিয়ে জমিতে আইল তৈরীর চেষ্টা করে। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়ে পড়লে তাৎক্ষনাত স্থানীয় কিশোর ও যুবকরা জবর দখলকারীদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ও মহাসড়কে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে মানববন্ধন কর্মসূচী প্রত্যাহার করে নেয় আন্দোলনকারীরা।

স্থানীয় ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দীন চৌধুরী বলেন, ফাঁসিয়াখালী ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ছড়ারকুল এলাকায় খেলার মাঠের জমি দখল নিয়ে দুপক্ষের মাঝে উত্তেজনা দেখা দিলে গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে উভয় পক্ষকে শান্ত করা হয়। বিরাধীয় দুই পক্ষকে ডেকে কাগজ পত্র দেখার পর এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।