চকরিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ১৬ বসতঘর পুড়ে ছাই

এম. মনছুর আলম, চকরিয়া : কক্সবাজারের চকরিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১৬টি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করেছেন ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার।

বর্তমানে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলো তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে।

শুক্রবার রাত ৭টার দিকে উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের ৬নম্বর ওয়ার্ডস্থ মরংঘোনা এলাকায় ভয়াবহ এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, চকরিয়া উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের ৬নম্বর ওয়ার্ডস্থ মরংঘোনা এলাকায় শুক্রবার রাত ৭টার দিকে বৈদ্যুতিক শটসার্কিটের আগুনের সুত্রপাত ঘটে মুর্হুতের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখায় অন্তত ১৮টি বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। এতে মুহুর্তের মধ্যেই সম্পূর্ণভাবে আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় ওই বসতঘর। আগুনে পুড়ে যাওয়া বসতঘরের লোকজন কোন ধরণের জিনিসপত্র ঘর থেকে বের করতে পারিনি। কোনভাবে প্রাণে রক্ষা পায় বাড়িতে থাকা লোকজন। বর্তমানে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো খোলা আকাশে নিচে বসবাস করছেন।

আগুন লাগার পরপরই স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসেও আগুন নেভাতে সক্ষম হয়নি। মূহুর্তের মধ্যে আগুনের ছড়িয়ে পড়ে পুরো বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়। খবর পেয়ে চকরিয়া ফায়ার সার্ভিস ও পেকুয়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের দমকলকর্মী ঘটনাস্থলে পৌছে ভয়াবহ আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও মুহুর্তের মধ্যে ১৬টি পরিবার নি:শেষ হয়ে যায়।

অগ্নিকান্ডে ভস্মিভূত হয়ে যাওয়া পরিবারের অন্তত অর্ধকোটি টাকার বিভিন্ন মালামালসহ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলো জানিয়েছেন।
এদিকে ঘটনার পরপরই অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ জাফর আলম অগ্নিকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।