বন্দর নগরীশিক্ষাঙ্গন

চবিতে গাড়ি পার্কিংয়ের নামে চাঁদাবাজি, আটক ১

আটক রোমিও। ছবি: সংগৃহীত

রাইজিং কক্স ডেস্ক : ভর্তি পরীক্ষা ঘিরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) এলাকার আবাসিক হোটেলে অতিরিক্ত ভাড়া, পানির বিল আদায়, আসন প্রতি চাঁদা আদায় সহ নানান অভিযোগ রয়েছে স্থানীয়দের বিরুদ্ধে। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে গাড়ি পার্কিংয়ের নামে চাঁদাবাজি।

সোমবার (২৮ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেশন চত্বরের সামনে থেকে রোমিও নামের এক যুবককে গাড়ি পার্কিংয়ের নামে চাঁদাবাজির দায়ে আটক করেছে পুলিশ।

জানা যায়, দূর-দূরান্ত থেকে আসা বিভিন্ন গাড়ি থেকে টোকেন দিয়ে চাঁদা আদায় করছিল রোমিও। ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা খবর পেয়ে তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। রোমিও নিজেকে শাখা ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক গ্রুপ ‘বাংলার মুখ’ এর কর্মী হিসেবে পরিচয় দিয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রোমিও নগরের প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। সে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল দপ্তরের সেকশন অফিসার মোহাম্মদ রাশেদ করিমের ছেলে। চবি’র ছাত্র না হওয়া সত্ত্বেও সে নিজেকে চবি শাখা ছাত্রলীগের বাংলার মুখের কর্মী বলে দাবি করে আসছে।

ভুক্তভোগীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেশন এলাকায় রেলওয়ের জমিতে রশি টেনে পার্কিং জোন তৈরি করেছে রোমিও। সেখানে পার্কিং করা গাড়িগুলো থেকে টোকেন দিয়ে চাঁদা আদায় করছিল। চাঁদা না দিলে অন্য স্থানেও গাড়ি রাখতে না দেওয়ায় এক গাড়িচালকের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়ায় রোমিও। এসময় পাশে থাকা সাংবাদিকরা এর কারণ জানতে চান।

রোমিও দাবি করেছে, রেলওয়ের জমি তার বন্ধুর বাবা ইজারা নিয়েছে। সে বন্ধুর সঙ্গে কথা বলে জায়গাটিতে পার্কিং জোন করেছে। পাশাপাশি রাস্তার পাশে গাড়ি দাঁড়ালে যানবাহন চলাচলে অসুবিধা হবে। তাই চালকদের বাধা দেওয়া হচ্ছিল।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের বাংলার মুখের নেতা আমির হোসেন সোহেল বলেন, অভিযুক্ত ছেলেটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নয়। কাজেই সে বাংলার মুখের কর্মী হওয়ার প্রশ্নই আসে না। তবে সে আমাদের পরিচিত ছোট ভাই।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল বলেন, অন্যায়ের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগ সরব। প্রশাসনকে সাথে নিয়ে সব ধরনের চাঁদাবাজি, র‌্যাগিং ও অন্যায়কারীদের দমন করা হবে।

হাটহাজারী মডেল থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, রোমিও নামের এক যুবককে আটক করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।