চসিক নির্বাচনে বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষ, নিহত ২

নির্বাচনী ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে চট্টগ্রাম। ছবি: সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আজ বুধবার সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ চলছে। কয়েক জায়গায় থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছে।

চট্টগ্রামের শহীদনগর সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আওয়ামী লীগ ও বিদ্রোহী প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। খবর বাংলাদেশ বুলেটিন’র।

অন্যদিকে দুটি পৃথক সহিংশতার ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুইজন নিহত হয়েছেন৷ নগরীর খুলশী থানার আমবাগান এলাকায় নির্বাচনি সহিংসতার সময় গুলিতে আলম মিয়া নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে পাহাড়তলী থানাধীন ১২নং সরাইপাড়া ওয়ার্ডে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে মুন্না নামের এক যুবলীগ কর্মী ঘটনাস্থলেই মারা যায়৷

এছাড়া মহিলা আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি ঘটনা ঘটেছে। সকাল ৯টা ৩৩ মিনিটে চট্টগ্রাম নগরীর আহসানুল উলুম জামিয়া গাউসিয়া কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে জালালাবাদ ওয়ার্ডের দুই কাউন্সিলর পদপ্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে হালকা ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটেছে। পরে পুলিশ এবং র‍্যাবের সদস্যরা এসে পরিস্থিতি শান্ত করে।

এছাড়া, পাঠানটুলী ওয়ার্ডের বিএনপি ও আওয়ামী লীগ বিদ্রোহীর এজেন্টদের বের করে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। কেন্দ্রগুলো হলো পাঠানটুলী বয়েজ স্কুল, কমার্স কলেজ, আবেদিয়া স্কুল, বাংলাবাজার ইউসুফ স্কুল জমির উদ্দিন স্কুল। নগরীর লালখান বাজার, পশ্চিম ষোলশহর, প্রবর্তক মোড় এলাকায় কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় ৩জন আহত হয়েছে।

এদিকে সকাল ১০ টার দিকে বিএনপির প্রার্থী ডা. শাহাদাৎ হোসেন জানান- তার ভোটারদের কেন্দ্র যেতে দিচ্ছে না, এজেন্টদের কোন্দ্র থেকে বের করে দেওয়াসহ কয়েকটি অনিয়মের অভিযোগ তুলেন।

অন্যদিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী সুশৃঙ্খলভাবে ভোট চলছে দাবি করে তিনি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী বলে জানান।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।