বন্দর নগরীশিক্ষাঙ্গন

চুয়েটে ‘গাণিতিক ভাষাতত্ত্ব ও বাংলা ভাষা প্রক্রিয়াজাতকরণ’ শীর্ষক কর্মশালা শুরু

কর্মশালায় বক্তব্য দিচ্ছেন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। ছবি: সংগৃহীত

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা : চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) শিক্ষার্থীদের অ্যাকাডেমিক পড়াশোনার পাশাপাশি কঠোর পরিশ্রমী হওয়ার তাগিদ দিয়ে ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন, আমরা চাই আমাদের দেশেও উদ্যোক্তা তৈরি হোক। প্রযুক্তিখাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তনকারী কিছু জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠুক। এ জন্য ইন্ডাস্ট্রি-অ্যাকাডেমিয়ার মধ্যে সংযোগ বাড়াতে হবে। গবেষণা করার মানসিকতা তৈরি করতে হবে। সৃজনশীল কাজের প্রতি মনযোগী হতে হবে।

মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) চুয়েটে অনুষ্ঠিত দুই দিনব্যাপী ‘গাণিতিক ভাষাতত্ত্ব ও বাংলা ভাষা প্রক্রিয়াজাতকরণ’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন এসব কথা বলেন। ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভাষা প্রযুক্তি’ স্লোগানে কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ইউজিসি ভবন থেকে স্কাইপযোগে ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির বর্তমান বৈপ্লবিক ধারার সুবিধা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে হলে ভাষাপ্রযুক্তি নিয়ে কাজ করতে হবে। কম্পিউটার ও ইন্টারনেট উপযোগী করে বাংলা ভাষাকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে হবে। চুয়েট এক্ষেত্রে অগ্রগামী ভূমিকা রাখতে পারে।

‘চুয়েটের এই কর্মশালার মাধ্যমে তরুণ প্রজন্ম উৎসাহিত হবে। তারা বর্তমান তথ্য-প্রযুক্তির বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বাংলা ভাষা নিয়ে কাজ করবে।’ বলেন এ শিক্ষাবিদ।

চুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, আন্তর্জাতিক যোগাযোগের মাধ্যম ইংরেজি হলেও বিশ্বব্যাপী বাংলা ভাষাকে ছড়িয়ে দিতে হবে। সেজন্য বর্তমানে ইন্টারনেট উপযোগী বাংলা ভাষায় কনটেন্ট তৈরি জরুরি হয়ে পড়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের চুয়েটে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে দেশের প্রথম আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স্থাপন করা হচ্ছে। শিক্ষার্থীরা চাকরির পেছনে না ছুটে যেন নিজেরাই উদ্যোক্তা হয়ে ওঠতে পারে সে জন্য বড় প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা হচ্ছে।

চুয়েটের কাউন্সিল কক্ষে অনুষ্ঠিত এ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়েট ‘আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স্থাপন’ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সৈয়দ জহুরুল ইসলাম, গিগা টেক লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সামিরা জুবেরি হিমিকা।

কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সিএলবিএলপি-২০১৯ এর প্রোগ্রাম চেয়ার অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক।

চুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এবং ‘চুয়েট আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স্থাপন প্রকল্প’ বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, আইসিটি বিভাগের যৌথ উদ্যোগে কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

দুই দিনব্যাপী জাতীয় এ কর্মশালায় দেশের ১০টি সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ২০০ জন ভাষা প্রযুক্তিবিদ, শিক্ষাবিদ, গবেষক, বিজ্ঞানী ও শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন।