ছোট বোনকে বাঁচাতে গিয়ে পানিতে ডুবে বড় বোনের মৃত্যু

মহেশখালী সংবাদদাতা : কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার ছোটমহেশখালীতে পুকুরে ডুবে যাওয়া ছোট বোনকে উদ্ধার করতে গিয়ে মিসকাত আকতার (১২) নামে এক কিশোরী মৃত্যু হয়েছে। আজ শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিতে স্থানীয় তেলিপাড়া জামে মসজিদের পুকুরে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত কিশোরী ইউনিয়নের তেলিপাড়া এলাকার মোঃ হাফেজের কন্যা ও ছোটমহেশখালী আহমদিয়া তৈয়্যবিয়া মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। এই ঘটনায় তার ছোটবোন শারমিন আকতার (৭) আহত হয়েছে।

তাদের বাবা মোঃ হাফেজ জানান, শুক্রবার হওয়ায় দুই বোন কাপড় ধুতে স্থানীয় মসজিদের পুকুরে যায়। এ সময় গোসল করতে নেমে ডুব দিয়ে অনেকক্ষণ ডুবে থাকে ছোটবোন শারমিন আকতার। এতে সন্দেহ হওয়ায় তাকে উদ্ধারে ওই স্থানে ডুব দেয় বড়বোন মিসকাত আকতার। সে ডুব দেয়ার কিছুক্ষণ পর ছোটবোন শারমিন অজ্ঞান অবস্থায় ভেসে উঠে। তবে মিসকাত ডুবে থাকে। এক পর্যায়ে খবর পেয়ে লোকজন খোঁজ করে মিসকাতকেও অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে। অজ্ঞান দুইবোনকে দ্রুত মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বড়বোন মিসকাত আকতারকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে ছোটবোন শারমিন বেঁচে আছেন। তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

ছোটমহেশখালী ইউপি চেয়ারম্যান জিহাদ বিন আলী বলেন, ‘ঘটনাটি আমি শুনেছি। খুবই মর্মান্তিক। এই মৃত্যু নিয়ে স্থানীয়রা পুকুরের অশুভ কিছুর মন্তব্য করছে। ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে নিহত মিসকাতের পরিবারকে সহায়তা দেয়া হবে।’

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।