লাইফস্টাইল

জুতা দুর্গন্ধ মুক্ত রাখবেন যেভাবে

সংগৃহীত ছবি

বিজ্ঞাপন
লাইফস্টাইল ডেস্ক, রাইজিং কক্স : পা অপরিষ্কার থাকা ও ঘামের কারণে জুতায় দুর্গন্ধ হয়। ঘামে ভেজা স্যাঁতসেঁতে অবস্থায় ব্যাকটেরিয়া দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এ কারণে সময় যাওয়ার সাথে সাথে দুর্গন্ধও বাড়তে থাকে।

পায়ের দুর্গন্ধ বেশ বিব্রতকর একটি সমস্যা। মাঝেমধ্যে জুতা খোলার পর দুর্গন্ধ এতটাই ভয়ানক হয় যে আশপাশের মানুষজনও বিরক্ত বোধ করেন।

যে কারণে পা থেকে দুর্গন্ধ ছড়ায়:
১. দীর্ঘসময় পা ঘামে ভিজে থাকলে দুর্গন্ধ ছড়ায়।
২. সিনথেটিক মোজার ভেতর দিয় বাতাস চলাচল করতে পারে না। এরা ঘাম শোষণেও অকার্যকর। এগুলো পায়ে দুর্গন্ধ বাড়ায়।
৩. কৃত্রিম চামড়ার জুতা পরলে চামড়ার ভেতর থেকে বাতাস চলাচল করতে না পারার কারণে পা ঘেমে যায় দ্রুত। ফলে পায়ে দুর্গন্ধ হওয়ার প্রবণতা বাড়ে।
৪. অনেকেই কনভার্স কিংবা স্নিকার্স মোজা ছাড়াই পরেন। ঘামে ভিজে জুতার ভেতরটাই স্যাঁতসেঁতে ও নোংরা হয়ে থাকে। এভাবেও দুর্গন্ধ ছড়াতে পারে।
৫. পায়ের যত্নে উদাসীনতা কিংবা আলস্যের কারণে পায়ে নানা ধরনের রোগ হয় এবং উপসর্গ হিসেবে দুর্গন্ধ ছড়ায়।


দুর্গন্ধ এড়াতে যা করবেন:
১. প্রতিদিন এক জোড়া জুতা না পরে জুতা বদল করে পরুন।
২. জুতা বদ্ধ জায়গায় না রেখে আলো–বাতাস চলাচল করে এমন জায়গায় রাখুন।
৩. অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান দিয়ে নিয়মিত পা পরিষ্কার রাখুন।
৪. দীর্ঘসময় জুতা-মোজা পরে না থেকে মাঝেমধ্যে জুতা খুলে পায়ে বাতাস লাগালে দুর্গন্ধ কমবে।
৫. প্রতিদিনই ধোয়া-পরিষ্কার সুতির মোজা ব্যবহার করুন।
৬. প্রতিদিনই জুতা রোদে দিন।
৭. ভেজা পায়ে জুতা, মোজা পরবেন না, তার ফলে দুর্গন্ধ কমবে।
৮. রোজ বাড়িতে ফিরে সামান্য উষ্ণ পানিতে লবণ মিশিয়ে তার মধ্যে অন্তত মিনিট পনেরো পা ডুবিয়ে রাখুন। এতে পায়ে ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে পারে না। ফলে পায়ে দুর্গন্ধ হওয়ার সমস্যা থেকেও রেহাই পাওয়া যাবে।

জেনে নিন কিছু ঘরোয়া টিপস্ :
১. জুতার মধ্যে সামান্য বেকিং সোডা ছিটিয়ে দিন। পরদিন ভেতরের অংশ মুছে পরিষ্কার করে জুতা পরুন। দুর্গন্ধ থাকবে না। তবে চামড়ার জুতায় বারবার বেকিং সোডা ব্যবহার করবেন না।
২. হালকা গরম পানিতে পুদিনাপাতা ও বেকিং সোডা দিয়ে পা ভিজিয়ে রাখুন এতে দুর্গন্ধ অনেকটা কমবে।
৩. কুসুম গরম পানিতে পা ভিজিয়ে স্ক্র্যাব করে মৃত কোষগুলো সরিয়ে ফেলুন, দুর্গন্ধ কমবে। শীতে নিয়মিত পায়ে ভালোমানের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।
৪. পুরনো মোজায় ২ টেবিল চামচ বেকিং সোডা নিয়ে গিঁট বেঁধে জুতায় রেখে দিতে পারেন। পরদিন মোজা সরিয়ে জুতা পরুন।
৫. জুতার মধ্যে এক টুকরো ফেব্রিক সফটনার সিট রেখে দিন রাতে।। পরদিন সেটি বের করে জুতা পরুন।
৬. স্নিকারস দুর্গন্ধমুক্ত রাখতে মাঝে মাঝে সামান্য লবণ ছিটিয়ে দিন।
৭. এক টুকরো কাপড় বা তুলা লবঙ্গ তেলে ভিজিয়ে জুতার মধ্যে রেখে দিন সারারাত। জুতার দুর্গন্ধ দূর হবে। কয়েকটি লবঙ্গ ফেলে রাখলেও উপকার পাবেন।
৮. ফুটন্ত পানিতে টি ব্যাগ ফেলে রাখুন ২ মিনিট। টি ব্যাগ ঠাণ্ডা হলে জুতার মধ্যে রেখে দিন। এক ঘণ্টা পর টি ব্যাগ সরিয়ে জুতার ভেতরের অংশ ভালো করে মুছে নিন। দুর্গন্ধের পাশাপাশি দূর হবে জুতায় থাকা ব্যাকটেরিয়া।
৯. জুতা পরার আগে পায়ে বেবি পাউডার ব্যবহার করুন। দুর্গন্ধ হবে না জুতায়। মোজা পরার আগে পায়ে খানিকটা ট্যালকম পাউডার মেখে নিলে উপকার পাবেন।
১০. কয়েক ফোঁটা সুগন্ধি এসেনশিয়াল অয়েল ছিটিয়ে দিন জুতার ভেতরে। দূর হবে দুর্গন্ধ।
১১. একটি স্প্রে বোতলে সমপরিমাণ সাদা ভিনেগার ও পানি মিশিয়ে জুতার ভেতরে স্প্রে করুন। বাতাসে শুকিয়ে নিন ভালো করে। গন্ধ দূর হবে।
১২. কফি গুঁড়া ছিটিয়ে দিন জুতার ভেতরে। ১২ ঘণ্টা রেখে পরিষ্কার করে ফেলুন ভালো করে।
১৩. কমলার খোসা টুকরা করে জুতার ভেতরে ছড়িয়ে দিন। এটি কেবল দুর্গন্ধই দূর করবে না, চমৎকার সুগন্ধ নিয়ে আসবে জুতায়।
১৪. আজকাল বাজারে পায়ের দুর্গন্ধ এড়ানোর সুগন্ধি পাওয়া যায়। সেগুলোও ব্যবহার করতে পারেন।