শিক্ষাঙ্গনসারাদেশ

জেএসসি-জেডিসিতে জিপিএ-৫ বেড়েছে ১০ হাজার

ফাইল ছবি

রাইজিং কক্স ডেস্ক : জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) এবং জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফল মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) প্রকাশ করা হয়েছে।

এ দুই পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৮৭ দশমিক ৯০ ভাগ। জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৮ হাজার ৪২৯ জন পরীক্ষার্থী। গতবছরের থেকে এবছর জেএসসি জেডিসিতে জিপিএ-৫ বেড়েছে ১০ হাজার ৩৩৪ টি। দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেএসসি এবং জেডিসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ নিয়ে প্রেস ব্রিফিং করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

গতবছর জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় গড় পাসের হার ছিল ৮৫ দশমিক ৮৩ ভাগ। গত জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছিল ৬৮ হাজার ৯৫ জন পরীক্ষার্থী।

চলতি বছরের জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এতে পাস করেছে ৮৭ দশমিক ৫৮ শতাংশ শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭৬ হাজার ৭৪৭ শিক্ষার্থী। চলতি বছরের জেডিসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ হাজার ৬৮২ জন পরীক্ষার্থী। এবছর জেডিসি পরীক্ষায় পাস করেছে ৩ লাখ ৪১ হাজার ৫৫৩ জন শিক্ষার্থী। এবার পাসের হার ৮৯ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

দুপুর থেকে www.educationboard.gov.bd ওয়েবসাইটে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফল দেখা যাবে। ওয়েবসাইটের ডান পাশে Exam Info Bank বক্সে Exam Result Archive লিঙ্কে ক্লিক করতে হবে। রেজাল্ট দেখতে www.educationboard.gov.bd ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে Examination ঘরের সামনে JSC/JDC সিলেক্ট করতে হবে। Year 2019 সিলেক্ট করতে হবে। এরপর নিজের শিক্ষা বোর্ড সিলেক্ট করতে হবে। এরপর শূন্যস্থানে রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর লিখতে হবে। এরপর দুটি সংখ্যা যোগ করতে বলা হবে। যোগফল লিখে নিচের ডানে সাবমিট বাটন প্রেস করতে হবে। সাবমিট বাটন প্রেস করার পরই রেজাল্ট ভেসে উঠবে এবং পেইজটি প্রিন্ট করা যাবে।

এছাড়া ঢাকা বোর্ডের ওয়েবসাইটের (www.dhakaeducationboard.gov.bd) রেজাল্ট কর্ণার থেকে প্রতিষ্ঠানের ইআইআইএন এন্ট্রি করে প্রতিষ্ঠানভিত্তিক রেজাল্ট শিট

মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমেও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার ফল জানা যাবে। কোনো মোবাইল অপারেটরের মেসেজ অপশনে গিয়ে পরীক্ষার নাম JSC অথবা JDC লিখে স্পেস দিতে হবে। সংশ্লিষ্ট বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর লিখে আবার স্পেস দিতে হবে। এরপর রোল নম্বর লিখে আবারও স্পেস দিয়ে পরীক্ষার বছর অর্থাৎ 2019 লিখতে হবে।

ঢাকা বোর্ডের নামের ক্ষেত্রে DHA, কুমিল্লা বোর্ডের ক্ষেত্রে COM, রাজশাহী বোর্ডের ক্ষেত্রে RAJ, যশোর বোর্ডের ক্ষেত্রে JES, চট্টগ্রাম বোর্ডের ক্ষেত্রে CHI,বরিশাল বোর্ডের ক্ষেত্রে BAR, সিলেট বোর্ডের ক্ষেত্রে SYL, দিনাজপুর বোর্ডের ক্ষেত্রে DIN এবং মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের ক্ষেত্রে MAD লিখতে হবে। যেমন, যশোর বোর্ডের জেএসসি’র ফল দেখার পুরো মেসেজটি হবে: JSC<স্পেস>JES<স্পেস>রোল নম্বর<স্পেস>2019। আর জেডিসি’র ফল দেখার মেসেজটি যেমন হবে: JDC<স্পেস>MAD<স্পেস>রোল নম্বর<স্পেস>2019। এবার মেসেজটি পাঠাতে হবে 16222 নম্বরে। ফিরতি এসএমএস এ পরীক্ষার্থীদের ফল জানিয়ে দেয়া হবে।

গত ২ নভেম্বর থেকে শুরু হয় জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা। ১১ নভেম্বর পর্যন্ত জেএসসি পরীক্ষা এবং ১৩ নভেম্বর পর্যন্ত জেডিসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এ বছর মোট ২৬ লাখ ৬১ হাজার ৬৮২ জন শিক্ষার্থীর জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার কথা ছিল । এদের মধ্যে জেএসসিতে ২২ লাখ ৬০ হাজার ৭১৬ জন ও জেডিসিতে ৪ লাখ ৯৬৬ জন পরীক্ষার্থী ছিলেন। সারাদেশে মোট ২৯ হাজার ২৬২ পরীক্ষা কেন্দ্রে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।