খেলাধুলা

ধোনিকে সেনার পোশাকে দেখে ক্ষুব্ধ কাশ্মীরের মানুষ আরো ক্ষুব্ধ

রাইজিং কক্স ডেস্ক : বিশ্বকাপের পর ক্রিকেট থেকে দুই মাসের ছুটি নিয়েছেন ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। বর্তমানে কাশ্মীরে ১০৬ টিএ ব্যাটালিয়নের সঙ্গে রয়েছেন প্যারা মিলিটারির সাম্মানিক এই লেফটেনেন্ট কর্নেল। টহল দিচ্ছেন কাশ্মীরে। কিন্তু এমন এক সময় তিনি সেখানে টহলে গেলেন যখন স্বায়ত্তশাসন হারানোর পর কাশ্মীর উত্তাল।

যা নিয়ে কাশ্মীরের একাংশের জনগণের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। এমন সময় কাশ্মীরে এসে অপ্রস্তুত অবস্থায় পড়তে হল বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় অধিনায়ককে। যদিও নেটদুনিয়ায় কাশ্মীরে ধোনিকে নিয়ে যে ভিডিওটা ঘুরছে সেটা ২০১৭ সালের বলে অনেকে দাবি করছেন।

জি নিউজের খবর, কাশ্মীরের প্রায় প্রতিটি অংশে এখন সেনার নজরদারি চোখে পড়ার মতো। আসলে যে কোনো ধরনের আন্দোলন প্রতিহত করতে সেনা মোতায়েন করেছে সরকার। মোবাইল, ইন্টারনেটসহ সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করা হয়েছে। এমন সময়ে ধোনি ভারতীয় সেনার পোশাকে কাশ্মীরের বারামুলা সেক্টরে হাজির হলেই অভাবনীয় কাণ্ড ঘটে। ধোনিকে সেনার পোশাকে দেখেই চটে যান কাশ্মীরের কিছু মানুষ।

ধোনিকে সামনে পেয়ে বিন্দুমাত্র উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেননি তারা। উল্টে এমএসকে তীব্র ধিক্কার দিতে শুরু করেন তারা। ‘বুম বুম আফ্রিদি’ স্লোগানে মেতে ওঠেন তারা। ঘটনার আকস্মিকতায় ধোনিও অপ্রস্তুত হয়ে পড়েন। তবে তিনি স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিমায় এই নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া জাহির করেননি। দেশের বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়কের প্রতি কাশ্মীরি জনগণের একাংশের এমন বিরুদ্ধাচরণ অনেকেই মেনে নিতে পারছেন না।

যদিও অনেকেই মনে করছেন, ভিডিওটি পুরনো। ২০১৭ সালের নভেম্বরে এমনটা হয়েছিল। ধোনি একটি স্থানীয় ক্রিকেট টুর্নামেন্টে অতিথি হিসেবে গিয়েছিলেন। তখনই তাকে দেখে একদল যুবক বুম বুম আফ্রিদি স্লোগান দেন। সেই একই ভিডিও নেট-দুনিয়ায় ফের ঘুরছে বলে দাবি করেছেন অনেকে।