শিক্ষাঙ্গনসারাদেশ

ন্যাশনাল ইয়ং বায়টেকনলজিস্ট কংগ্রেসের চ্যাম্পিয়ন চবি

রাইজিং কক্স ডেস্ক : দেশের জীববিজ্ঞান গবেষক, শিক্ষার্থী ও প্রফেশনালদের সবচেয়ে বড় আয়োজন ন্যাশনাল ইয়ং বায়টেকনলজিস্ট কংগ্রেস। এবছর এতে শীর্ষস্থান অধিকার করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।

নেটওয়ার্ক অফ ইয়ং বায়টেকনলজিস্ট বাংলাদেশ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের আয়োজনে গতকাল নবাব আলী চৌধুরী মিলানায়তনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ৫ম ন্যাশনাল ইয়ং বায়টেকনলজিস্ট কংগ্রেস। ৩৪ টি প্রতিষ্ঠানের ৭৪৪ জন এতে অংশ নেয়। এবারের কংগ্রেসে ছিল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জয়জয়কার। এতে অনুষ্ঠিত প্রথম জাতীয় আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় বায়োটেকনোলজি হ্যাঁকাথন এ একের পর এক বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করে তিন রাউন্ড পেরিয়ে ২৪ টি দলের মধ্যে চ্যাম্পিয়ন হয় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের দল সুপারবাগ-২.২। দলের সদস্যরা ছিল সুমাইয়া হাফিজ, আনজেসু পাল এবং সিলভিয়া নাজনিন। ফাইনালে তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ও নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কে পরাজিত করে। এছাড়া লাবোরেটরিতে তোলা ছবি নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় প্রথম জাতীয় বায়োটেকনোলজি ফটোগ্রাফি কন্টেস্ট। এতে ফাইনালে চ্যাম্পিয়ন হয় জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের তৌসিফ রেজা এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করে রক্তিম বড়ুয়ার তোলা গবেষনাকর্ম ভিত্তিক ছবি।

গবেষনা প্রবন্ধ উপস্থাপন প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের প্রাক্তন ছাত্রী আফরিন সুলতানা চৌধুরী (সুপারভাইসর- ডঃ নাজনিন নাহার ইসলাম) এবং বায়োইনফরমেটিক্স এন্ড মাইক্রোবিয়াল বায়োটেকনোলজি ক্যাটেগরি তে সেরা গবেষনা উপস্থাপক নির্বাচিত হয় আফরোজা আকতার তন্বী (সুপারভাইসর- ডঃ আদনান মান্নান)।

আইডিয়াভিত্তিক পোস্টার উপস্থাপনে রানার আপ হয় আঞ্জেসু পাল, সাজিয়া আফরিন এবং অনন্যা দে। মাতৃভাষায় বিজ্ঞান চর্চা উদ্বুদ্ধ করতে প্রথমবারের মত দেশে আয়োজিত হল থ্রিমিক তথা তিন মিনিটে বায়োটেকনোলজি থিসিস উপস্থাপন প্রতিযোগিতা। এতে রানার আপ হয় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের তৌসিফ রেজা। আয়োজনের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান ডঃ মুহাম্মদ শহিদুল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত বিজ্ঞানী অধ্যাপক ডঃ হাসিনা খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণরসায়ন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ডঃ জেবা ইসলাম সেরাজ। পুরস্কার বিতরন পর্বে উপস্থিত ছিলেন নাইটহুড উপাধিপ্রাপ্ত অক্সফর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী ওয়াল্টার বডমার, বাংলাদেশ একাডেমি অদ সায়েন্স এর সভাপতি ডঃ এ কে আজাদ চৌধুরী, জাতীয় ডি এন এ ফরেনসিক ল্যাব এর পরিচালক অধ্যাপক শরীফ আক্তারুজ্জামান এবং বঙ্গবন্ধু বায়োটেকনোলজি ইন্সটিটিউট এর পরিচালক অধ্যাপক ডঃ তফাজ্জল হোসেন।