খেলাধুলা

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে হচ্ছে বাংলাদেশ-নেপাল প্রীতি ম্যাচ

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম। ফাইল ছবি

ক্রীড়া ডেস্ক : বিশ্বকাপ বাছাই স্থগিত হয়ে যাওয়ার পর থেকেই প্রায় ১১ মাস ধরে মাঠের বাইরে জাতীয় দল। অবশেষে মাঠে নামার সুযোগ হচ্ছে বাংলাদেশের। নভেম্বরে ফিফা উইন্ডোতে দুটি ম্যাচ খেলতে রাজী হয়েছে নেপাল।

এর মাঝে শ্রীলঙ্কা আসার কথা শোনা গেলেও পরে নেপাল নিশ্চিত করেছে। নভেম্বরে ফিফা উইন্ডোতে ঢাকায় এসে প্রীতি ম্যাচ খেলতে রাজী হয়েছে দলটি। নেপালের দশরথ নয় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে হবে ম্যাচটি।

বাফুফে সূত্রে জানা গেছে, ইতোমধ্যে নেপাল মৌখিকভাবে প্রস্তাবে সাড়া দিয়েছে। সর্বোচ্চ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনকে অনুশীলন শুরু করার অনুমতি দিয়েছে দেশটির সরকার।

ম্যাচটি ঘিরে ভেন্যু ও সময়সূচি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। এই সপ্তাহের মধ্যে ভ্রমণসহ সবকিছু চূড়ান্ত করবে বাফুফে।

দশরথ নয় বাংলাদেশ-নেপাল ম্যাচ হবে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে

বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, ‘আমরা প্রস্তাব দিয়েছি। অবশেষে ওরা অনুশীলনের মৌখিক অনুমতি পেয়েছে। খেলার অনুমতিও পেয়ে গেছে আনফা। এ সপ্তাহের মধ্যে সবকিছু চূড়ান্ত করা হবে।’

ভেন্যু চূড়ান্ত না হলেও দুটো ম্যাচই রাজধানীর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছে বাফুফে। ম্যাচগুলো হতে পারে রুদ্ধদ্বার অবস্থায়। নেপাল দল কবে নাগাদ ঢাকায় আসবে সেটা আগামী কয়েকদিনের মধ্যে চূড়ান্ত হতে পারে বলে জানান আবু নাইম।

এদিকে করোনার কারণে বিশ্বকাপ স্থগিত হলেও প্রীতি ম্যাচের আয়োজন করার চেষ্টা করছিল বাফুফে। তারই অংশ হিসেবে শ্রীলঙ্কাকেও প্রস্তাব দেয়া হয়। দেশটিতে নির্বাচন ও করোনা বিবেচনা করে তারা বাফুফের প্রস্তাবে না করে দেয়। নেপাল ইতিবাচক সাড়া দেয়ায় নভেম্বরে দুটো ম্যাচ খেলতে পারে বাংলাদেশ।

প্রীতি ম্যাচকে সামনে রেখে দুই দলের স্বতন্ত্র ক্যাম্প, অনুশীলন মাঠসহ যাবতীয় বিষয় দুয়েকদিনের মধ্যেই চূড়ান্ত করবে বলে বাফুফে জানিয়েছে। ম্যাচকে সামনে রেখে অতি শিগগিরই ঢাকায় চলে আসবেন কোচ জেমি ডেও।