বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নতুন নির্বাচক রাজ্জাক

আব্দুর রাজ্জাক। ফাইল ছবি

ক্রীড়া ডেস্ক, রাইজিং কক্স : দীর্ঘদিন ধরেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নির্বাচক হিসেবে কাজ করে আসছেন কেবল দুইজন নির্বাচক, যা আগে তিন জনের প্যানেল হিসেবেই দেখা যেত।

এবার মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুল বাশার সুমনের সাথে যুক্ত হতে যাচ্ছেন আব্দুর রাজ্জাক।

গত কয়েক মাস ধরেই গুঞ্জন রটেছিল রাজ্জাক অথবা শাহরিয়ার নাফীসকে দেখা যেতে পারে তৃতীয় নির্বাচক হিসেবে। অনেক জল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে রাজ্জাককেই এই পদের জন্য বেছে নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ওয়েস্ট সিরিজের মাঝপথেই নির্বাচক প্যানেলে যুক্ত হচ্ছেন তিনি।

বাঁহাতি স্পিনার রাজ্জাক এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে অবসর নেননি। তবে জাতীয় দলেও নেই দীর্ঘদিন ধরে। ঘরোয়া ক্রিকেটে তিনি নিয়মিত খেলছেন এখনো। যদিও সর্বশেষ বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ ও বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ কোনোটিতেই তিনি ছিলেন না। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ (বিসিএল), জাতীয় ক্রিকেট লিগ (এনসিএল), ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগের (ডিপিএল) নিয়মিত মুখ তিনি।

আরো পড়ুন- ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ে টাইগারদের জয়জয়কার

৩৮ বছর বয়সী এই স্পিনার বাংলাদেশ দলে সর্বশেষ খেলেছেন ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে। একটি ম্যাচের পরে আর সুযোগ পাননি তিনি। তবে হাল না ছেড়ে ঠিকই ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলে যাচ্ছিলেন তিনি। ২০২০ সালের মার্চ মাসে ডিপিএলে সর্বশেষ খেলেছেন এই বোলার। যদিও ডিপিএলের সেই আসর এখনো শেষ হয়নি, করোনার কারণে স্থগিত আছে টুর্নামেন্টটি।

রাজ্জাক প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলছেন ২০ বছর ধরে। একই সময় থেকে লিস্ট এ ক্রিকেটও খেলছেন তিনি। অভিজ্ঞতায় টইটম্বুর রাজ্জাককেই তাই বাংলাদেশ ক্রিকেটের পরবর্তী নির্বাচক হিসেবে বেছে নিয়েছে বিসিবি।

২০০৪ সালে ওয়ানডে ক্রিকেট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় রাজ্জাকের। বাংলাদেশের পক্ষে ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রথম ২০০ উইকেট শিকারের রেকর্ড তার দখলে। ওয়ানডেতে তিনি মোট ২৭৯টি উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন। ম্যাচ খেলেছেন ১৫৩টি। ২০০৬ সালে টেস্ট অভিষেক হয় রাজ্জাকের। এই সংস্করণে কেবল ১৩টি ম্যাচ খেলে পেয়েছেন ২৮টি উইকেট।

 

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।