সারাদেশ

বিপিএল: ঢাকাকে হারিয়ে কোয়ালিফায়ারে চট্টগ্রাম

সংগৃহীত ছবি

ক্রীড়া ডেস্ক, রাইজিং কক্স : এলিমিনেটর ম্যাচে ঢাকা প্লাটুনকে ৭ উইকেটে হারিয়ে কোয়ালিফায়ার নিশ্চিত করলো চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। রাজশাহী ও খুলনার মধ্যেকার প্রথম কোয়ালিফায়ারে হেরে যাওয়া দলের বিপক্ষে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে খেলবে চট্টগ্রাম। ঢাকার দেয়া ১৪৪ রানের জয়ের লক্ষ্য ১৪ বল ও ৭ উইকেট হারিয়ে পেরিয়ে যায় চট্টগ্রাম।

রান তাড়ায় নেমে ওপেনিং জুটিতে ৫.২ ওভারে ৪২ রান জমা করে চট্টগ্রাম। ১২ বলে তিন বাউন্ডারি ও দুই ছক্কায় ২৫ রান করে সাজঘরে ফেরেন জিয়াউর রহমান। তিনে ব্যাটিংয়ে নেমে ইমরুল কায়েস খেলতে থাকেন আক্রমণাত্মক মেজাজে। ২২ বলে এক চার ও তিন ছক্কায় ৩২ রান করে শাদাবের বলে আউট হন তিনি। তবে গেইলের সঙ্গে তার ৪২ বলে ৪৯ রানের জুটিতে সুবিধাজনক অবস্থানে পৌঁছে যায় চট্টগ্রাম। শুরু থেকেই ধীর গতিতে ব্যাট করছিলেন ক্রিস গেইল।

স্ট্রাইকরেটটা আর বাড়াতে পারেননি। দলীয় ১০২ রানে শাদাবের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন গেইল। এক হাতে তার ক্যাচ লুফেন মাশরাফি। ৪৯ বলে এক চার ও দুই ছক্কায় গেইলের ব্যাট থেকে আসে ৩৮ রান। শেষ ৫ ওভারে জয়ের জন্য ৩৬ রান প্রয়োজন ছিল চট্টগ্রামের। ক্রিজে এসে শাদাবকে ছক্কা হাঁকিয়ে শুরু করেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ। ১৪ বলে অপরাজিত ৩৪ রানের ইনিংসে চট্টগ্রামের জয় নিশ্চিত করেন মাহমুদুল্লাহ।

মিরপুরে টসে জিতে ঢাকাকে ব্যাটিংয়ে পাঠান চট্টগ্রাম অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। যথারীতি ধীর গতিতে শুরু ওপেনার তামিম ইকবালের। দুই অঙ্কে পৌঁছতে ব্যর্থ তামিম (১০ বলে ৩)। ১২ ম্যাচে ৩৯৬ রান নিয়ে বঙ্গবন্ধু বিপিএল শেষ করলেন জাতীয় দলের এই ওপেনার। দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি ঢাকার আরো পাঁচ ব্যাটসম্যান। এর মধ্যে তিনজন ফিরেছেন কোনো রান না করেই। ৬০ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়া ঢাকাকে লড়াকু পুঁজি এনে দেন শাদাব খান ও থিসারা পেরেরা। অষ্টম উইকেট জুটিতে দু’জনে যোগ করেন ৪৪ রান। পেরেরা ১৩ বলে ২৫ রানে ফিরে গেলেও শাদাব খান সঁপাটে ব্যাট চালাতে থাকেন। টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি তুলে নেন এই পাকিস্তানি অলরাউন্ডার। শেষ পর্যন্ত ৩ ছক্কা ও ৫ বাউন্ডারিতে ৪০ বলে ৬২ রানে অপরাজিত থাকেন শাদাব। তার কল্যাণে শেষ ৭ ওভারে ৮৪ রান তুলে ৮ উইকেটে ১৪৪ রানে থামে ঢাকা প্লাটুনের ইনিংস। রায়াদ এমরিট ৩টি, রুবেল হোসেন ও নাসুম আহমেদ ২টি করে উইকেট নেন। ১২ ম্যাচে ১৮ উইকেট নিয়ে সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকারিদের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রুবেল। শীর্ষে রয়েছেন রংপুর রেঞ্জার্সের মোস্তাফিজুর রহমান। ১২ ম্যাচে তার শিকার ২০ উইকেট। তবে মোস্তাফিজকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ থাকছে রবি ফ্রাইলিঙ্ক (১৮), মেহেদী হাসান রানা (১৭) ও শহীদুল ইসলামেরও (১৭)।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
টস: চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স, ফিল্ডিং
ঢাকা প্লাটুন: ২০ ওভারে ১৪৪/৮ (মুমিনুল ৩১, থিসারা ২৫, শাদাব ৬৪; এমরিট ৩/২৩, রুবেল ২/৩৩, নাসুম ২/১১)
চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স: ১৭.৪ ওভারে ১৪৭/৩ (ক্রিস গেইল ৩৯, জিয়াউর ২৫, ইমরুল ৩২, মাহমুদুল্লাহ ৩৪*, চ্যাডউইক ১২*; শাদাব ২/৩২)

Comment here