‘ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য স্থায়ী ও নিরাপদ ক্যাম্পাস গড়তে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে চবি প্রশাসন’

অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বহুল প্রত্যাশিত ‘ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যান’ প্রস্তুতির কাজ শেষ হয়েছে।

৫ অক্টোবর সকাল ১০:৩০ টায় চবি উপাচার্য দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যান প্রণয়নের জন্য নিয়োজিত পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান Sheltech Consultants (Pvt) Ltd. Sheltech Private Ltd. (J.V.) কর্তৃক প্রণীত ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যানের ওপর প্রস্তাবিত সংশোধিত চূড়ান্ত ডিজাইন, ড্রয়িং এবং ড্রাফট রিপোর্ট সম্পর্কে Public Hearing with the Stakeholders-এর এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার। সভায় অনলাইনে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন জাতীয় সংসদের চট্টগ্রাম-৫ (হাটহাজারী) এলাকার মাননীয় সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ইউসিজি’র সাবেক চেয়ারম্যান ও চবি পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কমিটির সম্মানিত সদস্য প্রফেসর আবদুল মান্নান এবং বিভিন্ন পর্ষদের সম্মানিত সদস্যবৃন্দ। প্রস্তুতকৃত এ ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যান মাল্টি মিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে উপস্থাপন করেন এবং বিশদ বিবরণ তুলে ধরেন উক্ত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা জনাব মোঃ আরিফুল ইসলাম ও পরিকল্পনাবিদ জনাব আবদুল্লাহ আল মাসুদ এবং অনলাইনে অংশগ্রহন করেন উক্ত কার্যক্রমের টিম লিডার প্রফেসর ড. আখতার উদ্দিন চৌধুরী। অনুষ্ঠানে চবি সিনেট ও সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ, অনুষদ সমূহের ডিনবৃন্দ, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, ফাইন্যান্স কমিটির সদস্যবৃন্দ, পরিকল্পনা কমিটির সদস্যবৃন্দ, বিভাগীয় সভাপতি, ইনস্টিটিউট ও গবেষনা কেন্দ্রের পরিচালকবৃন্দ, কলেজ পরিদর্শক, গ্রন্থাগারিক, হলের প্রভোস্টবৃন্দ, প্রক্টর, হিসাব নিয়ামক, ছাত্র-ছাত্রী পরামর্শ ও নির্দেশনা কেন্দ্রের পরিচালক, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, পরিচালক পরিকল্পনা ও উন্নয়ন, চীফ মেডিকেল অফিসার, পরিচালক আইসিটি সেল, প্রশাসক এস্টেট, প্রশাসক পরিবহন, প্রশাসক প্রেস, ১১ নং ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং উক্ত ইউনিয়নের ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক চবি অফিসার সমিতি, কর্মচারী সমিতি ও কর্মচারী ইউনিয়ন, প্রকৌশল দপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ, নিরাপত্তা কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন চবি রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর এস এম মনিরুল হাসান এবং স্বাগত বক্তব্য রাখেন চবি প্রধান প্রকৌশলী আবু সাঈদ হোসেন।

মাননীয় উপাচার্য তাঁর ভাষণে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বহু প্রতীক্ষিত এ ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যান প্রস্তুতির কাজ শেষ হওয়ায় শেলটেক কর্তৃপক্ষ এবং চবি’র প্রকৌশলীবৃন্দসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। উপাচার্য সভার শুরুতে উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যানের কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করেন। তিনি  বলেন, এ ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ও দীর্ঘদিনের গবেষণা এবং পরিশ্রমের ফসল। তিনি আরও বলেন, যে পরিকল্পনা নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় যাত্রা শুরু করেছিল কালের পরিক্রমায় তা পরিমার্জন আবশ্যকীয় হয়েছে। তাই আধুনিক বিশ্বের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বিশ্ববিদ্যালয়কে অধিকতর সমৃদ্ধ ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য স্থায়ী নিরাপদ ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠা করতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যান তৈরীর কাজ শুরু করেছে। মাননীয় উপাচার্য এ ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যানের বিভিন্ন খুটিনাটি সম্পর্কে পুংখানুপুংখরূপে অধিকতর যাচাই-বাছাই করে ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যানের কাজ সুসম্পন্ন করার জন্য উপস্থিত বিজ্ঞ সদস্যদের পরামর্শকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান শেলটেক কর্তৃপক্ষ এবং চবি’র সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলী ও কর্মকর্তাদের আহবান জানান।

সভায় উপস্থিত সম্মানিত বিজ্ঞ সদস্যবৃন্দ ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যান নিয়ে স্বতঃস্ফূর্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন এবং তাঁদের সুনির্দিষ্ট মত প্রকাশের মাধ্যমে বিভিন্ন খুটিনাটি বিষয় উত্থাপন করেন এবং কিছু সুপারিশমালা পেশ করেন।

ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যান প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ-সভায় মাননীয় উপাচার্য এবং বিজ্ঞ সদস্যবৃন্দের উত্থাপিত বিভিন্ন প্রশ্নের ব্যাখ্যা প্রদান করেন এবং তাঁদের উপস্থাপিত বিভিন্ন সুপারিশমালা ও যে সকল ক্ষেত্রে অসঙ্গতি রয়েছে তা সংশোধন করে পরবর্তীতে ডিজিটাল মাস্টার প্ল্যানটি পুনঃউপস্থাপনের দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।