ব্যবসা ও বানিজ্য

মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি পুনরায় উন্মুক্ত ঘোষণা

শাহা মোহাম্মদ রুবেল : কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি পুনরায় উন্মুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে।

বুধবার (৭ আগস্ট) জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে কার্যালয়ের শহীদ জাফর আলম সিএসিপি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি পুনরায় উন্মুক্ত করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এ সিদ্ধান্ত বুধবার বিকাল থেকে কার্যকর করা হবে বলে সভায় জানানো হয়।

কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমানসহ সভায় উপস্থিত প্রায় সকলে সোমবার (৫ আগস্ট) হতে মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি বন্ধ করে দেওয়ার বিষয়টি অযৌক্তিক বলে দাবি করলে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন বিপিএম সীমান্তে মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি উন্মুক্ত করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে টেকনাফের ফোর্সকে নির্দেশ প্রদান করেন। এ সময় পুলিশ সুপার বলেন, এখন থেকে মিয়ানমার থেকে পশু আমদানিতে আর কোনো বাধা নেই।

সভায় জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেন, দেশীয় খামারে উৎপাদিত গবাদিপশুর মূল্য ধরে রাখার জন্য প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশক্রমে গত সোমবার হতে মিয়ানমার থেকে সকল প্রকার গবাদিপশু আমদানি বন্ধ করে দেওয়ার জন্য মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এখন পবিত্র কুরবানির কথা ও স্থানীয় জনসাধারণের চাহিদা ও স্বার্থের কথা বিবেচনা করে বুধবার থেকে আবারও পশু আমদানি উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

এদিকে মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি উন্মুক্ত করে দেওয়ার ঘোষণা শুনে স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছেন ব্যবসায়ীরা। গরু ব্যবসায়ী মো. কলমি উল্লাহ বলেন, মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি বন্ধের সিদ্ধান্তে আমরা হতবাক হয়েছিলাম। কারণ এ ব্যবসায় আমাদের অনেক টাকা পুঁজি আছে। এখন পশু আমদানির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করায় আমরা অনেক খুশি এবং সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাই।

এ সময় মিয়ানমার থেকে পশু আমদানি উন্মুক্ত করে দেওয়ায় সরকার অনেক টাকা রাজস্ব আদায় করতে পারবে বলে মন্তব্য করেন এ খাতের ব্যবসায়ীরা।