টেকনাফমাদক চোরাচালান

রোহিঙ্গা দূর্ধর্ষ ডাকাত গ্রেপ্তার

টেকনাফ সংবাদদাতা : টেকনাফে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে ইয়াবা অস্ত্র ও কার্তুজসহ এক রোহিঙ্গা দূর্ধর্ষ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে র্যাব-১৫। এসময় তার কাছ থেকে ৩ হাজার ৯০০ পিস ইয়াবা, একটি এলজি শুটারগান, পাঁচ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত ডাকাত হলেন টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা মুছনি নয়াপাড়া পুরাতন রেজিস্ট্রার্ড ক্যাম্পের শেড নং-৮২৫/৫, ব্লক-সি বাসিন্দা আব্দুল আমিনের ছেলে মোঃ জমির (৩০)।

র‌্যাব-১৫ টেকনাফ ক্যাম্পের ইনচার্জ লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মীর্জা শাহেদ মাহতাব (এক্স) বিএন বলেন, ‘৩০ জুলাই মঙ্গলবার সকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পান হ্নীলা ইউনিয়নের মুছনি নয়াপাড়া পুরাতন রেজিস্ট্রার্ড ক্যাম্প-১ জকির ডাকাতের বাড়িতে কয়েকজন ডাকাত অস্ত্র ও ইয়াবা ক্রয় বিক্রয়ের উদ্দেশ্য অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল সেখানে দূর্গম পাহাড়ে অবস্থিত কয়েকটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে দূর্ধর্ষ ডাকাত জমিরকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। তার কয়েকজন সহযোগীরা পালিয়ে যায়।

এসময় তার থেকে ৩ হাজার ৯০০ পিস ইয়াবা, একটি এলজি ওয়ান শুটারগান ও ৫ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। পালিয়ে যাওয়া জকির, সেলিম, কামাল ডাকাতদের গ্রেপ্তার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

ইয়াবা ও অস্ত্রসহ গ্রেফতারকৃত কুখ্যাত রোহিঙ্গা ডাকাতকে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর ও পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২২ ফেব্রুয়ারি র‌্যাবের সঙ্গে গুলাগুলিতে মুছনি ক্যাম্পের সশস্ত্র ডাকাতদের প্রধান নুরুল আলম ডাকাত নিহত হয়। তার সহযোগীরা জমির, জকির, সেলিম, কামাল ডাকাত দীর্ঘ দিন ধরে বিভিন্ন অপরাধ করে আসছে’।