কেজিতে ১০ টাকা কমেছে পেঁয়াজের দাম

অনলাইন ডেস্ক : ঢাকায় চার দিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজিপ্রতি ১০ টাকা পর্যন্ত কমেছে। চলতি সপ্তাহে দেশের বাজারে ভারত থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ ঢুকতে পারে, এমন সম্ভাবনা থেকে দামের পতন হয়েছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

শনিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার ও মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটের আড়তের পাশাপাশি তিনটি কাঁচাবাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায়। কৃষি মার্কেটে গিয়ে দেখা গেছে, পেঁয়াজের আড়তে বস্তায় বস্তায় পেঁয়াজ জমে আছে।

বিক্রেতা আরিফ হোসেন জানান, আড়তে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ আছে, কিন্তু প্রত্যাশা অনুযায়ী বিক্রি হচ্ছে না। কয়েক দিন থেকেই পেঁয়াজের দাম কমছে। গতকাল তিনি দেশি পেঁয়াজ ২৮ থেকে ৩২ টাকা কেজিতে এবং চীন থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ ২০-২৪ টাকা কেজিতে বিক্রি (পাইকারি) করছেন।

আড়তে পুরোনো দেশি পেঁয়াজের পাশাপাশি নতুন পেঁয়াজ এবং চীন ও মিসর থেকে আমদানি করা পেঁয়াজও দেখা গেছে। তবে ভারত থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ দেখা যায়নি। দেশি পেঁয়াজের মান অনুযায়ী দামের হেরফের হচ্ছে।

দুপুরে কারওয়ান বাজারের পেঁয়াজের আড়তে গিয়ে দেখা গেছে, এখানে কৃষি মার্কেটের আড়তের চেয়েও কেজিপ্রতি ১-২ টাকা কমে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে।

মিনহাজ বাণিজ্যালয়ের সেলিম মল্লিক বলেন, তারা দেশি পেঁয়াজের মান অনুযায়ী ২৮-৩০ টাকা কেজি এবং চীনের পেঁয়াজ ২০-২৩ টাকা দরে বিক্রি করছেন।

একই আড়তের রাজীব মল্লিক বলেন, তিন-চার দিন আগে দেশি পেঁয়াজ ৩৮-৪০ টাকা কেজি এবং চীনের পেঁয়াজ ২৪-২৫ টাকা দরে বিক্রি করেছেন। এ সপ্তাহে ভারতের পেঁয়াজ দেশের বাজারে ঢুকতে পারে। এ খবর জানাজানির পর পেঁয়াজের দাম কমে গেছে। তবে ভারতের পেঁয়াজ দেশে এলেও দাম আর হয়তো কমবে না।

এদিকে টানা সাড়ে তিন মাস বন্ধ থাকার পর আবারো হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে পেঁয়াজের আমদানি শুরু হয়েছে। শনিবার বিকেল থেকে বন্দর এলাকায় আসতে শুরু করেছে পাইকার-পত্র। পেঁয়াজ আমদানি শুরু হওয়ায় স্থানীয় খুচরা বাজারে কমতে শুরু করেছে দাম।

গত বুধবার (২৮ ডিসেম্বর) ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় পেঁয়াজ রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়। এরপর আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় ভারত থেকে পেঁয়াজবোঝাই ট্রাক বন্দরে প্রবেশ করে। এর মধ্যদিয়ে সাড়ে তিন মাস পর দুই দেশের মাঝে পেঁয়াজের বাণিজ্য শুরু হয়।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ হারুন বলেন, উৎপাদন সঙ্কট ও দাম বৃদ্ধির অজুহাতে গেলো বছর সেপ্টেম্বর মাসে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার। অবশেষে গত ডিসেম্বর মাসের ২৮ তারিখ সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় ভারত সরকার।

তিনি আরো বলেন, নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবার পর হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা পেঁয়াজ আমদানির জন্য এলসি করে। সেই পেঁয়াজগুলো আজ বিকেল থেকে বন্দরে প্রবেশ করতে শুরু করেছে। আশা করছি দুই একদিনের মধ্যে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করবে।

রাইজিংকক্স/সাআ

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।