উখিয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয়দের মাঝে টিন ও নগদ অর্থ বিতরণ

ক্ষতিগ্রস্থ এক পরিবারের হাতে নগদ অর্থ তুলে দিচ্ছেন জেলা প্রশাসক ও উপজেলা চেয়ারম্যান। ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয়দের মাঝে ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ত্রাণ ও নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়েছে।

শনিবার (১০ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার বালুখালী কাশেমিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় ১২৬ পরিবারের মাঝে ৩ বান্ডিল ঢেউটিন ও নগদ ৯ হাজার টাকা করে বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, সম্প্রতি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ স্থানীয় প্রতিটি পরিবারকে ৩ বান্ডেল ঢেউটিন, গৃহ নির্মাণের জন্য ৯ হাজার টাকা করে বিতরণ করা হয়। এ সময় তিনি এও বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সকলের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা উচিত।

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলো এর আগেও ৩০ কেজি চাল, শুকনো খাবার ও সাড়ে ৭ হাজার টাকা করে বিতরণ করা হয়। পর্যায়ক্রমে তাদের পূর্নবাসনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

এ সময় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, ছিলেন, উখিয়া আ’লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আমিমুল এহসান খান, উখিয়া উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এম. গফুর উদ্দিন চৌধুরী প্রমূখ।

একইদিন সেন্টার ফর জাকাত ম্যানেজমেন্ট (সিজেডএম) এর পক্ষ থেকে ২০০ পরিবারকে
২৫০০টাকার চাল, ঢাল, তেলসহ প্রয়োজনীয়তা সহায়তা সামগ্রি প্রদান করা হয় বলে জানিয়েছেন প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর সাঈদ মুহাম্মদ আনোয়ার।

উল্লেখ্য, ২২ মার্চ উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ভয়াবহ ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডে প্রায় ৯ হাজারের অধিক রোহিঙ্গা বসতি ও স্থানীয়দের ঘর-বাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। মৃতদেহ উদ্ধার করা হয় ১১ টি। নিখোঁজ হয় অনেকেই। আহত হয়েছে ৫’শতেরও বেশি মানুষ। আশ্রয়হীণ হয়ে পড়ে ৫০ হাজারে মত রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশি নাগরিক।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।