পেকুয়ায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে গৃহবধূ নিহত 

এম. মনছুর আলম, চকরিয়া : রাতের আঁধারে কক্সবাজারের পেকুয়ায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে সেলিনা আক্তার (৩৬) নামের এক গৃহবধূ নিহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ আরো দুই ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়।

রবিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে পেকুয়া উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নস্থ বুধামাঝির ঘোনা নামক এলাকায় এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত গৃহবধু সেলিনা আক্তার ওই এলাকার ফরিদুল আলমের স্ত্রী। এছাড়াও ঘটনায় গুলিবিদ্ধ আহতরা হলেন, একই এলাকার মো. সেলিম উদ্দিনের ছেলে ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নাজমুল সাকিব (২৩) ও নুরুল আবছারের ছেলে সাইফুল ইসলাম। তৎমধ্যে গুলিবিদ্ধ গুরুতর আহত হওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাকিবের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (চমেক) প্রেরণ করা হয়।

সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহতের স্বামী ফরিদুল আলম বলেন, রবিবার মধ্যরাতে একদল সন্ত্রাসী গুলিবর্ষণ করে স্থানীয় নুরুল ইসলামের বসতঘরে তাণ্ডব চালায়। সন্ত্রাসীরা তান্ডব চালিয়ে ফেরার সময় আমার গোয়াল ঘর থেকে ৪টি গরু লুট করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। ওই সময় আমার স্ত্রী সেলিনা আক্তার বাড়ি থেকে বের হওয়ার সাথে সাথে সন্ত্রাসীরা তাকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে তাকে হত্যা করা হয়। মধ্যরাতে সন্ত্রাসীদের ব্যাপক গুলি বর্ষণের আওয়াজ শুনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সাকিব ও সাইফুল বাড়ি থেকে বের হলে তাদেরকেও গুলি করা হয়। একপর্যায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে তারা দুইজনই গুরুতর আহত হয়। পরে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যাওয়ার সময় আমার গৃহপালিত ৪টি গরু লুট করে নিয়ে যায় তারা।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়,পেকুয়া বারবাকিয়া ইউনিয়নস্থ বুধামাঝির ঘোনা এলাকায় মৃত সাহাব মিয়ার ছেলে মো. হোসেন, মৃত আবদু রহমানের ছেলে আক্তারুজামান ও ইউপি সদস্য আবু ছৈয়দ টুকুর নির্দেশে মাহামুদুল করিম, মফিজুর রহমান, মামুন ও কাইছারসহ ১২-১৪ জনের সংঘবদ্ধ একদল স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী মধ্যরাতে ফাঁকাগুলি বর্ষণ করে স্থানীয় নুরুল ইসলামের বসতঘরে তাণ্ডব চালায়। ওইসময় ব্যাপক তান্ডব চালিয়ে তার বসতঘর গুড়িয়ে দেয়া হয়। বসতঘরে তান্ডব চালিয়ে সন্ত্রাসীরা ফেরার সময় ফরিদুল আলমের বাড়ির গরু লুট করতে গিয়ে তার স্ত্রীকে গুলি করে হত্যা করে। এসময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীসহ আরো দুই ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ করে আহত করা হয়। ওই সময় গুলির আওয়াজে স্থানীয় লোকজন বাড়ির চতুরপাশে এগিয়ে এসে জড়ো হয়ে ঘটনায় জড়িত দুই সন্ত্রাসীকে আটক করেছে। পরে পেকুয়া থানা পুলিশ ঘটনার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে হতাহতদের উদ্ধার করেন। আহত গুলিবিদ্ধ দুই জনকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করা হয়। তবে পেকুয়া এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বেশ কয়েকমাস ধরে চরম নাজুক ও ভেঙ্গে পড়েছেন বলে স্থানীয় বেশ কিছু জনপ্রতিনিধি দাবী করেছে।

পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কানন সরকার বলেন, সন্ত্রাসীদের গুলিতে এক গৃহবধূ নিহত হওয়ার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। পরে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে তার প্রাথমিক সুরুতহাল রিপোর্ট তৈরি করেছে। ঘটনায় জড়িত দুইজনকে আটক করা হয়। এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে তিনি জানান।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।