কক্সবাজারে ভোক্তা অধিকারের অভিযান, ২ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

এম. সালাহ উদ্দিন আকাশ, রাইজিং কক্স ডটকম : পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে দ্রব্যমূল্য মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখার লক্ষ্যে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কক্সবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোঃ ইমরান হোসাইনের নেতৃত্বে কক্সবাজার সদরের বিভিন্ন এলাকায় বাজার অভিযান পরিচালনা করা হয়।

রোববার (২৬ এপ্রিল) সকালে কক্সবাজার সদরের বড় বাজার এলাকায় বিভিন্ন আড়ৎ ও দোকান অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এতে দেখা যায় প্রায় সকল দোকানেই মূল্য তালিকা হালনাগাদ আছে এবং আদা, রসূনের দাম কমতির দিকে। বড় বাজারে রসুনের খুচরা মূল্য ১৫০ টাকা এবং আদার খুচরা মূল্য ২২০ থেকে ২৪০ টাকা।

এ সময় মেসার্স মোস্তফা বাণিজ্যালয়ের ক্রয় ভাউচার নিরীক্ষা করে দেখা যায় ২২/০৪/২০ তারিখে উক্ত প্রতিষ্ঠান আদা ক্রয় করে কেজি প্রতি ১৬০ টাকায় এবং ২৩/০৪/২০ তারিখে আদা বিক্রি করে কেজি প্রতি ১৯০ টাকায়, আবার একই আদা ২৪/০৪/২০ তারিখে কেজি প্রতি বিক্রি করা হয় ২১০ টাকায়। উক্ত প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধির কাছে একই পন্য ভিন্ন ভিন্ন মূল্যে বিক্রয়ের কারন জানতে চাইলে তিনি কোন যৌক্তিক কারন দেখাতে না পারায়, কারসাজি করে পন্য মূল্য বৃদ্ধির আপরাধে মেসার্স মোস্তফা বাণিজ্যালয়কে ২০০০০ টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়।

পরে আলীর জাহাল এলাকার বিভিন্ন দোকানে গ্যাস সিলিন্ডারের দাম যাচাই করে দেখা যায় অধিকাংশ দোকানে গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ৯৫০ থেকে ১০০০ টাকা কিন্তু মেসার্স সামা এন্টারপ্রাইজে গ্যাস সিলিন্ডারের দাম রাখা হয় ১১৫০ টাকা। এর কারন জানতে চাইলে উক্ত প্রতিষ্ঠানের মালিক কোন যৌক্তিক কারন দেখাতে না পারায়, মেসার্স সামা এন্টারপ্রাইজকে ৫০০০ টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কক্সবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোঃ ইমরান হোসাইন রাইজিং কক্স ডটকম কে জানান, তদারকি কালে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য, মজুদ ও সরবরাহ বিষয়ে বিভিন্ন কাঁচা ও মুদি দোকানে যাচাই বাছাই করা হয় । বাজারে আদার কিছুটা সংকট থাকলেও অন্য কোন পণ্যের সংকট নেই এবং কাঁচা সবজির দাম কিছুটা কমেছে। এছাড়া অন্যান্য দ্রব্যের মজুদ সরবরাহ স্বাভাবিক রয়েছে। রমজান মাস উপলক্ষে বাজারে কোন পণ্যের দাম বৃদ্ধি না করার জন্য ব্যবসায়িদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে এবং পণ্যের মূল্য তালিকা অনুযায়ী বিক্রি করার জন্য বলা হয়েছে । এ সময় ব্যবসায়ীদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিক্রি করার জন্যও পরামর্শ দেওয়া হয় । তিনি আরও জানান জনস্বার্থে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কক্সবাজার জেলা কার্যালয়ের বাজার তদারকি অব্যাহত থাকবে ।

অভিযানে প্রসিকিউটর হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিভিল সার্জন কক্সবাজারের জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক তরুণ বড়ুয়া সহ আর্মড পুলিশ ব্যাটেলিয়ন-১৪ এর এক দল সদস্য।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।