৫ লাখ ১০ হাজারে বিক্রি হলো মোনেম মুন্নার দুই জার্সি

ক্রীড়া ডেস্ক : নিলামে উঠেছিল মোনেম মুন্নার প্রেসিডেন্ট গোল্ডকাপ জেতা ‘২ নম্বর’ জার্সিটি। সেটির সঙ্গে বিক্রি হয়েছে আবাহনীর হয়ে খেলার সময় মোনেম মুন্নার আরও একটি জার্সি। দুটি জার্সি বিক্রি হয়েছে পাঁচ লাখ দশ হাজার টাকায়। অকশন ফর ফোর অ্যাকশন নামে একটি ফেসবুক পেইজ থেকে শনিবার রাতে নিলামে বিক্রি হয় মুন্নার জার্সি দুইটি।

মুন্নার জার্সি ছাড়াও ফিফার সাবেক রেফারি তৈয়ব হাসানের ম্যাচ পরিচালনা করা একটি জার্সি বিক্রি হয়েছে নিলামে। ৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকায় সেটি কিনে নিয়েছেন সাতক্ষীরা চেম্বার অফ কমার্সের নাসিম ফারুক খান। রেফারি তৈয়ব হাসানের জার্সিটি পরে ২০১৩ সালে সাফের ফাইনাল পরিচলানা করেছিলেন। নিলাম থেকে প্রাপ্ত সবগুলো জার্সির অর্থই খরচ হবে বৈশ্বিক মহামারীর কবলে পড়া দুস্থ মানুষের সেবায়।

ফেসবুকে লাইভ নিলামের বেশিরভাগটাই অবশ্য ছিল মোনেম মুন্নাকে ঘিরে। তার স্ত্রী সুরভী মোনেম আগেই জানিয়েছিলেন, এই পরিস্থিতিতে দেশের জন্য কিছু করতে চান তিনি।

আড্ডা চলার সময়ই বাংলাদেশে এইচবিসি ব্যাংকের সিইও মাহবুবুর রহমান যুক্ত হন অনুষ্ঠানে। তার অনুরোধে মুন্নার আবাহনীর ২ নম্বর জার্সিটিও বিক্রি করতে সম্মতি জানান সুরভী। পরে ২ লাখ ১০ হাজার টাকায় আবাহনীর জার্সিটি কিনে নেন জনাব মাহবুব।
১৯৮৯ সালে প্রেসিডেন্ট গোল্ডকাপের শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ লাল দল। সেই দলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় ছিলেন মুন্না। ওই টুর্নামেন্টে মুন্নার গায়ে চড়ানো জার্সিটি ৩ লাখ টাকায় কিনে নিয়েছে কার্নিভাল ইন্টারনেট নামে একটি প্রতিষ্ঠান।

মোনেম মুন্না পেশাদার ফুটবলার হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন ১৯৮২ সালে। ‘৮৭ তে আবাহনীতে যোগ দিয়ে এরপর ক্যারিয়ারের শেষ টানেন সেখানেই। ছিলেন জাতীয় দল ও আবাহনীর অধিনায়কও। ২০০৫ সালে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেন বাংলাদেশ ফুটবলের কিংবদন্তী এই ডিফেন্ডার।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।