একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি প্রক্রিয়া এখনই নয়

ফাইল ছবি

রাইজিং কক্স ডেস্ক : প্রতিবছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা ফল প্রকাশের এক সপ্তাহ পরে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে ভর্তি সংক্রান্ত কোনো বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে না। সামাজিক দূরত্ব কার্যকরের লক্ষ্যে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সূত্র শনিবার রাতে জানায়, আন্ত:শিক্ষা বোর্ড থেকে প্রস্তাব এসেছে ৬ জুন অনলাইনে আবেদন শুরু করার কিন্তু একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির বিষয়ে মন্ত্রণালয় এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। করোনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। তাছাড়া ১৫ জুন পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার ঘোষণা আছে। এর আগেই আমরা এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানাব।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, প্রতি বছর দেখা যায় ভর্তির ফল প্রকাশের পর বোর্ডে দৈনিক ৪-৫ হাজার শিক্ষার্থীর আসা-যাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা অসম্ভব হয়ে পড়তে পারে। সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে ভর্তির ব্যাপারে এখন পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। পরিস্থিতির দিকে আমরা নজর রাখছি।

ফেব্রুয়ারিতে এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এবার ২০ লাখের বেশি শিক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশ নেয়। শনিবার দুপুর ২টা পর্যন্ত যে ১৩ লাখ ২৩ হাজার ৭২৬ জন নিবন্ধন করেছে। এসব শিক্ষার্থীর ফল সার্ভার থেকে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে চলে যাবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের প্রধান সিস্টেম অ্যানালিস্ট প্রকৌশলী মনজুরুল কবীর।

ফল জানার পদ্ধতি :

http://www.educationboardresults.gov.bd শীর্ষক শিক্ষা বোর্ডগুলোর কেন্দ্রীয় ওয়েবসাইট থেকে পরীক্ষার্থীরা ফল জানতে পারবে। এছাড়া শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইটেও একই প্রক্রিয়ায় রোল নম্বর ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়েও শিক্ষার্থীরা ফল জানতে পারবে।

এছাড়া যে কোনো মোবাইল অপারেটর থেকে এসএমএস করে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল জানা যাবে। SSC/DAKHIL লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর (যেমন ঢাকা বোর্ডের ক্ষেত্রে DHA) লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে পরীক্ষার সাল (২০২০) লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠালে ফিরতি এসএমএসে ফল জানা যাবে।

ফল পুনঃনিরীক্ষা : কারও ফল সম্পর্কে আপত্তি থাকলে ৭ দিনের মধ্যে পুনঃনিরীক্ষার জন্য আবেদন করতে হবে। রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল অপারেটর টেলিটকের মাধ্যমে কাল থেকেই আবেদন নেয়া হবে। আবেদন করতে RSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে বিষয় কোড লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফি বাবদ কত টাকা কেটে নেয়া হবে তা জানিয়ে একটি পিন নম্বর (পার্সোনাল আইডেন্টিফিকেশন নম্বর) দেয়া হবে। আবেদনে সম্মত থাকলে RSC লিখে স্পেস দিয়ে YES লিখে স্পেস দিয়ে পিন নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে যোগাযোগের জন্য একটি মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। একই এসএমএসে একাধিক বিষয়ের আবেদন করা যাবে, এক্ষেত্রে বিষয় কোড পর্যায়ক্রমে ‘কমা’ দিয়ে লিখতে হবে। সূত্র : দৈনিক শিক্ষা

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।