সেনা বাহিনী দিয়ে কুতুবদিয়া সামুদ্রিক ভাঙন রোধে স্থায়ী বেড়িবাধেঁর দাবি

কুতুবদিয়া প্রতিনিধি : দক্ষিণ চট্টগ্রামের উপকূলীয় দ্বীপ কুতুবদিয়ার সামুদ্রিক ভাঙনের কবল থেকে রক্ষা করতে কুতুবদিয়ার_চারপাশে স্থায়ী বেড়িবাঁধ নির্মাণে দ্রুত সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিটের সহায়তা চেয়েছে কুতুবদিয়াবাসী।

দীর্ঘদিনের সামুদ্রিক ভাঙনে দ্বীপ কুতুবদিয়া সাগরগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। হুমকির মুখে পড়ছে ওই এলাকায় বসবাসকারী মানুষ। অতীতের ভাঙনের কারণে অনেকই অন্য এলাকায় স্থান্তারিত হয়ে উদ্বাস্তু জীবন পারছে । এসব দিক বিবেচনা করে কুতুবদিয়ার সামুদ্রিক ভাঙন রোধে কক্সবাজারের কুতুবদিয়ার সন্তান কবি-প্রাবন্ধিক ও শিক্ষক খালেদ মাহবুব মোর্শেদ সরকারের কাছে দাবি জানিয়ে ফেসবুকে একটি স্টাট্যাস দেন। পাঠকের সুবিধার্থে স্ট্যাটাসটি হুবহু প্রদান করা হলো-

সামুদ্রিক ভাঙনে দিনদিন হারিয়ে যাচ্ছে আমাদের অতি-প্রিয় জন্মদ্বীপ কুতুবদিয়া। বছর-বছর হ্রাস পাচ্ছে এ দ্বীপের আয়তন। সাগর-গর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে পূর্বপুরুষের ভিটেমাটির পাশাপাশি গোরস্থানও। উৎপাদন করে জীবিকা নির্বাহ করা তো দূরের কথা, বঞ্চিত হতে হবে কবর জিয়ারতের অধিকার থেকেও!

এভাবে সামুদ্রিক ভাঙনে কুতুবদিয়া হারিয়ে গেলে নতুন এক সঙ্কটে পড়বে প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ! দক্ষিণ চট্টগ্রামের সমগ্র উপকূলীয় অঞ্চল সামুদ্রিক ভাঙনজনিত হুমকির মুখে পড়বে। গৃহহীন, ভূমিহীন, উদবাস্তু হবে এক বিশাল জনগোষ্ঠী! সমুদ্রতলে বিলীন হয়ে যাবে এদেশের গর্ব আর উপার্জনের হাতিয়ার, বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত (কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত)। এ সঙ্কট মোকাবিলা করা বাংলাদেশের জন্যে অত্যন্ত কঠিন /প্রায় অসম্ভব একটা বিষয় হবে।

এমতাবস্থায় দেশের বৃহৎ স্বার্থেই কুতুবদিয়াকে সামুদ্রিক ভাঙনের কবল থেকে অবশ্যই রক্ষা করতে হবে। আর তা করতে হলে দ্রুত সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিটের মাধ্যমেই কুতুবদিয়ার চারপাশে স্থায়ী বেড়িবাঁধ নির্মাণ করতে হবে। এ দাবী জাতীয় স্বার্থেই উত্তোলিত হচ্ছে। এ দাবী আদায়ে দ্বীপবাসী জনতাকে জীবনবাজি রেখে রাজপথে জোরদার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। আর এভাবেই দ্রুত স্থায়ী বেড়িবাঁধ নির্মাণে সরকার ও সংশ্লিষ্টদের বাধ্য করতে হবে।

সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিট দিয়ে এ বাঁধ নির্মাণ করা একান্ত আবশ্যক, এছাড়া অন্য উপায় নাই। তা নাহলে অতীতের ন্যায় বন্টিত বাজেট আবারও লুন্ঠকদের একাউন্ট ভারি করবে কেবল।
দাবি আমাদের একটাই
অবিলম্বে স্থায়ী বেড়িবাঁধ চাই।’

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।