ঘরে ঢুকে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

সংবাদদাতা: কক্সবাজারের পেকুয়ায় রাতের আঁধারে ঘরে ঢুকে নেজাম উদ্দিন (৩৫) নামের এক কাঠ ব্যবসায়ী যুবককে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করেছে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা।

শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে পেকুয়া উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নস্থ ভারুয়াখালী এলাকায় এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত নেজাম উদ্দিন ওই এলাকার মৃত সব্বির আহমদের ছেলে।

নিহতের স্ত্রী শামিনা জানায়, দিবাগত রাত ১টার দিকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বারবাকিয়া ইউনিয়নের ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর আলম ও শফি আলম, জসিম, বেলালের নেতৃত্বে ১৪/১৫ একদল সন্ত্রাসীরা রাতের আঁধারে বসতঘরে ঢুকে তার স্বামী নেজাম উদ্দিনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও গুলি করে গুরুতর আহত করে। সন্ত্রাসীরা চলে যাওয়ার পরে স্থানীয়দের সহায়তায় নেজাম উদ্দিনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শনিবার সকালে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, বারবাকিয়া ইউনিয়নস্থ ভারুয়াখালী এলাকার ইউপি সদস্য ডাকাতি খুনসহ বহু মামলার আসামি জাহাঙ্গীর আলমের সঙ্গে একই এলাকার অটোরিক্সা চালক রহিম দাদের সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। নিহত নেজাম উদ্দিন রহিম দাদের বোনের জামাতা। কাঠ ব্যবসায়ী নেজাম উদ্দিন জায়গা জমির বিরোধের ঘটনায় রহিম দাদের পক্ষে থাকতো বলেই ক্ষিপ্ত হয়ে একদল সন্ত্রাসীরা রাতের আঁধারে বসতঘরে ঢুকে নেজাম উদ্দিনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও গুলি করে এ ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) কানন সরকার জানান, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।