চকরিয়ায় ৭ম শ্রেণির ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ

প্রতীকী

চকরিয়া সংবাদদাতা : কক্সবাজারের চকরিয়ায় সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রেমিকের বাড়িতে নিয়ে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার পরিবারের পক্ষ থেকে আক্রান্তের বাবা বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার থানায় মামলা রুজু করেছে।

আক্রান্ত ছাত্রীকে উদ্ধার করে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করা হয়েছে।

চকরিয়া পৌরসভার ৭নম্বর ওয়ার্ডের ইমাম উদ্দিন পাড়ায় বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে প্রেমিক আসাদ উল্লাহর বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে। অভিযুক্ত ধর্ষক আসাদ উল্লাহ পৌরসভার ওই এলাকার আবদুল গফুর ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মানিকপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণিতে পডুয়া এক ছাত্রীর সাথে চকরিয়ায় পৌরসভা পালাকাটা ইমাম উদ্দিন পাড়ার আবদুল গফুর ছেলে আসাদ উল্লাহ প্রেমের ফাঁদে ফেলেন। ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি করে প্রেমিক আসাদ উল্লাহ বিয়ের আশ্বাস্ত করে ওই স্কুল ছাত্রীকে তার বাড়িতে নিয়ে আসেন। বুধবার রাতে স্কুল পডুয়া ছাত্রীর বাবা-মা প্রেমিক আসাদ উল্লাহর বাড়ি থেকে উদ্ধার করেন। উদ্ধার পরবর্তী ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ছাত্রীর বাবা নুরুল ইসলাম বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার সকালে থানায় মামলা রুজু করেন। পরে আক্রান্ত ছাত্রীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করা হয়েছে।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা রুজু করা হয়। ঘটনায় জড়িত ধর্ষককে গ্রেপ্তারে পুলিশ কাজ করছে।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।