উখিয়ায় সর্বাত্মক লকডাউনের প্রথম দিন

রাইজিং কক্স প্রতিবেদক : করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকার ঘোষিত সপ্তাহব্যাপী লকডাউনের প্রথম দিন কঠোরভাবে পালিত হচ্ছে। কক্সবাজারের উখিয়ার লোকজনও সার্বিক বিবেচনায় এ লকডাউনকে অনেকটা মেনে নিতে দেখা গেছে। এদিকে লকডাউন অমান্য করায় ১০ মামলায় ১৪ ব্যক্তিকে ৪ হাজার ৬ শত টাকা জরিমানা গুনতে হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) ভোর থেকে লকডাউনের প্রথম দিনে উপজেলার প্রধান সড়কের বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে পুলিশ চেক পোষ্ট দেখা যায়।
সকাল থেকে কঠোরভাবে চলতে দেখা গেছে। বন্ধ রয়েছে প্রায় দোকান পাঠ, মার্কেট, ব্যাংক, বীমা, সরকারী, বেসরকারী, স্বায়ত্তশাসিত অফিস। চলছে না কোন ধরনের গণপরিবহন। তবে বিচ্ছিন্নভাবে কিছু কিছু টমটম, সিএনজি চলার চেষ্টা করছে। সীমিত আকারে খোলা রয়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় মুদি, ঔষধ দোকান, কাঁচা বাজার, রেস্তোরাঁ।
সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাজ উদ্দিন

কঠোর লকডাউন বাস্তবায়ন করতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আহমেদ ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাজ উদ্দিন বাইরে আসা মানুষদের অনেক জিজ্ঞাসাবাদ করছে। অপ্রয়োজনে কেউ বাড়ির বাইরে আসলে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতে মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহনের কথা জানা গেছে। এদিকে সকাল থেকে সেনা বাহিনী ও বিজিবি শহরের প্রধান প্রধান সড়কে টহল দিতে দেখা গিয়েছে।

উখিয়া উপজেলা প্রশাসনের কঠোর ভূমিকার কারণে উপজেলার সর্বত্র সর্বাত্মক লকডাউনে প্রধান সড়কগুলো ফাঁকা ছিল ।

কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কের উখিয়া উপজেলা গেইট একালা
উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন লকডাউন অমান্য করায় সর্বাত্মক লকডাউনের প্রথম দিনে ১০ মামলায় ১৪ ব্যক্তিকে ৪ হাজার ৬ শত টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তিনি করোনার সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত নির্দেশনা মেনে চলতে সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন। এছাড়াও কেউ খাদ্য সংকটে পড়ে ৩৩৩ এ কল দিলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।
রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।