পবিত্র আষাঢ়ী পূর্ণিমা তিথির শুভেচ্ছা

সঞ্জয় বড়ুয়া

মহাবিশ্বের কোনকিছুই চিরস্থায়ী নয়, সবকিছুরই পতন, ধ্বংস বা মৃত্যু অবশ্যই হয়েছে, হবে। আমি বা আপনি কেহই অমর থাকতে পারবোনা।
শুধু অমর থাকবে আমাদের কর্ম।
কবিগুরুর ভাষায়-
“ঠাঁই নাই ঠাঁই নাই, ছোট সে তরী;
আমার সোনার ধানে গিয়েছে ভরী।”

এ ক্ষণিক সময়ে কত পাওয়া না পাওয়ার বেদনা, কত হিংসা-বিদ্বেষ, কত আমিত্ব!অপরকে ঠকিয়ে সবকিছু নিজের আয়ত্বে আনার চিন্তায় বিভোর। অপরকে কঠোর বাক্যে প্রহার করে নিজেকে আনন্দিত করা, বাক্যে না পারলে ভয়ানক বোমা সহ কত বিশাল বিশাল অস্ত্রের আয়োজন।
এতকিছুর পরেও কি সুখ পাওয়া যায়?অপরকে নিয়ন্ত্রণে আনা যায়?
সবকিছু নিজের আয়ত্বে আনা যায়?
গ্রীক মহাবীর আলেকজান্ডার পুরো পৃথিবীর অর্ধেক জয় করেও ক্ষান্ত ছিলেন না, ছিকেননা মানসিক ভাবে সন্তুষ্ট, সেও কি অমর হতে পেরেছেন!

কিন্তু মহামানব যারা নিজের কথা ভেবেছিলেন, ভেবেছিলেন অপরের সুখের কথা তারাই মানবের মনে মহান হয়ে থাকবেন চিরকাল।

আসুন, নিজেকে আয়ত্বে আনি, আয়ত্বে আনি নিজের লোভ-লালসা কে, আয়ত্বে আনি নিজের অগ্নি সদৃশ রাগকে। তখন সুখের জন্য অন্যের দ্বারস্থ হতে হবেনা, সাথে রাখতে হবেনা গোলাবারুদ।

হয়তো বলবেন, এগুলো করার পরেও মহামানবগণ অনেকবার তুচ্ছতাচ্ছিল্য হয়েছিলেন।
হ্যাঁ,হয়েছিলেন ঠিকই তবে পরিশেষে সে মহান মানুষরাই বিজয়ী হয়েছেন। ঠাঁই নিয়েছেন মানুষের অন্তরে,আর শ্রদ্ধার আসনে স্থান করে নিয়েছেন যুগে যুগে।

আসুন আজকে পবিত্র আষাঢ়ী পূর্ণিমা তিথির পবিত্র দিনে সবাই তথাগত সম্যক সম্বুদ্ধের সাথে একসুরে বলে উঠি, অনুশীলন করি
“সব্বে সত্ত্ব, সুখীতা হোন্তু-
জগতের সকল প্রাণী সুখী হোক”
সবাই জ্ঞানী হোক, মৈত্রী, করুণা, উপেক্ষার গুণে গুণান্বিত হোক।

★★★মহান আষাঢ়ী পূর্ণিমা তিথির
তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনাগুলো★★★

১. সিদ্ধার্থের মাতৃগর্ভে প্রতিসন্ধিগ্রহণ
২. সিদ্ধার্থের গৃহত্যাগ
৩. বুদ্ধের স্বদ্ধর্ম প্রচার
৪. ত্রৈমাসিক বর্ষাবাস প্রবর্তন
৫. মাতৃঋণ পরিশোধে স্বর্গে অভিধর্ম দেশনা।
৬. পৃথিবীতে বুদ্ধের পর পঞ্চবর্গীয় শিষ্যের মধ্যে কোন্ডন্য ভিক্ষুর অর্হৎ লাভ।
৭. বুদ্ধের প্রথম ভিক্ষু-সংঘ সৃষ্টি
০৮. ত্রিরত্নের জন্মদিন ( বুদ্ধ, ধর্ম, সংঘ)
০৯. দিবালোকে দেব মনুষ্যদের যমক প্রতিহার্য ঋদ্ধি প্রদর্শন।

এহেন বিশেষ দিনে জাতি, বর্ণ, ধর্ম নির্বিশেষে সকলের প্রতি রইল মৈত্রীপূর্ণ শুভেচ্ছা।

শুভেচ্ছান্তে,
সঞ্জয় বড়ুয়া
অফিসার, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড
রামু শাখা, কক্সবাজার।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।