লিবিয়ায় গাদ্দাফিপুত্রের কারামুক্তি

লিবিয়ায় সদ্য কারামুক্তি পাওয়া গাদ্দাফিপুত্র সাদি গাদ্দাফি । ছবি : সংগৃহীত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : উত্তর আফ্রিকার দেশ লিবিয়ার সাবেক নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফির ছেলে সাদি গাদ্দাফিকে কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর) তিনি লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির কারাগার থেকে মুক্ত হয়েছেন বলে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের কাছে নিশ্চিত করেছেন দেশটির সরকারের একাধিক কর্মকর্তা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০০১ সালে দেশটিতে শুরু হওয়া রাজনৈতিক অস্থিরতার সময় নিহত হয়েছিলেন দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট মুয়াম্মার গাদ্দাফি। সে সময় দেশটিতে ন্যাটোর অভিযান চলছিল।

ব্যাপক টালমাটাল সেই পরিস্থিতিতে লিবিয়া ছেড়ে নাইজারে পালিয়ে গিয়েছিলেন সাদি গাদ্দাফি। যদিও তার তিন বছর পর ২০১৪ সালে তাকে লিবিয়া সরকারর হাতে প্রত্যর্পণ করে নাইজারের সরকার এবং হত্যা, প্রতারণা, দাসত্বে বাধ্য করার মতো অভিযোগ আনা হয়।

দেশটির রাজধানী ত্রিপোলির আদালতে এই অভিযোগ সমূহের বিচার শুরু হয়। মূলত তখন থেকেই কারাগারে বন্দি ছিলেন সাদি গাদ্দাফি।

এর মধ্যে ২০১৮ সালে লিবিয়ার বিচারবিভাগ সম্পর্কিত মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সাদি গাদ্দাফির বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের পক্ষে জোরালো কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। কিন্তু এরপরও কারা অন্তরীণ ছিলেন তিনি।

লিবিয়া সরকারের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সম্প্রতি লিবিয়ার উপজাতিগোষ্ঠীর কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতা দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আবদুল হামিদ দিবেবেকে সাদি গাদ্দাফির মুক্তির জন্য অনুরোধ জানানোর পরই প্রক্রিয়াটিতে গতি আসতে শুরু করে। যার ফলস্বরূপ রবিবার মুক্তি পেলেন সাদি।

এ দিকে কারাগার থেকে মুক্তির পরপরই ত্রিপোলি বিমানবন্দর থেকে বিশেষ একটি বিমানে করে তাকে তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরে পাঠিয়ে দেওয়া হয় বলেও জানিয়েছেন ওই কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, মুয়াম্মার গাদ্দাফির অপর ছেলে সাইফ আল ইসলাম গাদ্দাফি বর্তমানে লিবিয়ার জিনতান শহরে বসবাস করছেন। স্থানীয় মিডিয়াগুলো বলছে, চলতি বছর দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন সাইফ আল ইসলাম গাদ্দাফি।

সূত্র : রয়টার্স

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।