শুকনাছড়ি বনভূমি- এই বন এই তপোমন

মনির ইউসুফ

আমার মন গলে যাই, মিশে যাই, ভেসে যাই
এই উদার প্রাকৃতিক ঐশ্বর্যের সবুজ বনে

এই বন এই তপোমন আমার বুকে সঞ্জিবন
এখানে তাজা হয় জগতের ফুসফুস
আর মানবের বেদনাকে ধারণ করে

জগত কার জন্য সঞ্জিবনী কার জন্য মধু
তিলকে যারা তাল করে, তালকে তিল!
কে তুমি কামুখ চোখে তাকালে এই পাহাড়ের ‍বুকে
কে তুমি পরদেশী?
এখানে প্রবাল ফুটে পাথর, পাথর সামলাই স্রোতের ধাক্কা
এখানে আবার পাথর ঘেঁষেই ফুটে কুসুমের ফণা
এখানে বীজের অঙ্কুর পৃথিবীর প্রতি মেলে দেয় পাতাডানা

আমি তো বৈদিকধ্যানী সিদ্ধাচার্য গৌতম
সেই কবে পদ্মাসানে বসেছি
আর তোমাদের বলেছি ওম শান্তি ওম শান্তি ওম শান্তি

০২

কে তুমি তোমার নগরের ভার নিয়ে আমার বন ধ্বংস করো?
কে তুমি তোমার নাগরিক মন নিয়ে এসে আমার বুক করো জখম?
নারী তো নয় প্রকৃতির বাইরে, পুরুষও নয়-
তবে কেন আমার অভয়ারণ্য ধ্বংস করে
পুরুষ চোখে নারী ভোগের অভরায়ণ্য বানাও

আমি এখানে গলে যাই, ভেসে যাই, উড়ে যাই
আমি শুকনাছড়ি বনে বসে ধ্যান করি তপোমনে
উপরে চিল, শকুন, কাকা, বক আরও আরও পাখি
নিচে সমুদ্রের ঢেউ অংশত আমি
আমি মিশে যাই, গলে যাই, ভেসে যাই

আমি প্রবালের তীরে পাথরের কূল ঘেঁষে ফুল হয়ে ফুটি
আহা, কি রোশনাই, বঙ্গোপসাগরীয় ঘ্রাণ
আমি ছড়িয়ে দিই সৌরভ পুষ্পিত বেদনা
আমার শুকনাছড়ি আমাকে জড়িয়ে ধরে
আর কোন দিশা খোঁজে পায় না…..

০৩

আমার ঝর্না জল স্বচ্চ টলটল
আমার হৃৎপিণ্ডও এমন টলমল
তুমি কি খাবে তা?
বাঘেও খায়নি কখনও
এ বনে তে আছে অনেক বাঘ

আহা, বনের বাঘের চেয়ে মনের বাঘে খায়
মানুষকে যখন থেকে খাওয়া শুরু করলো মনেরর বাঘ
এ জাত বজ্জাত হয়ে উঠলো
এ জাত আপন পর ভুলে গেল

আহা, মানুষ খাও, জগতকে খাও
নিজের সন্তানসন্ততিকে খাও
আদরের নামে খাও, মায়ার নামে খাও, স্নেহের নামে খাও

তোমাদের সব আছে নাগরিক দেমাগ, তেজ, টাকা
শুধু নেই নাগরিক মানিবকতা..

তুমি তো হরিণ খাও, শালা বাঘ খেতে পারো না
দেখি তোমার তেজ আর দেমাগ কতদূর এগুলো্

মানুষ বনের বাঘও শিকার করে
শুধু মনের বাঘ শিকার করতে পারে না
এর হিংস্রতা আকাশ সমান
শালা দেখি খেতে পারো কিনা মনের বাঘ
এটি লেলিহান আগুনে পুড়বে
তার জন্য দুনিয়া গুলজার

০৪

তোমরা যে সিভিল হও নাই
তা কি বুঝতে পেরেছো
বাঙালি সিভিল সোসাইটি
যদি সিভিল হতে
বন ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করতে না

কে কখন ভ্রমণে আসবে ঐসব দেহপসারিণী
পুরুষ বেশ্যা
তাদের জন্য কেন বন ধ্বংস করবে?
তাদের বনে নিয়ে হান্দাবে ঐ সুযোগ করে দাও
মনের প্রকৃতি ও বনের প্রকৃতি মিলে যাক

সমুদ্র বন আর তপোমন মিলে
একটি প্রাগৈতিহাসিক পৃথিবীর চিহ্ন থেকে যাক
ফুল পাখি ঢেউ স্রোত আর আকাশের উপর আকাশ
আমাদের বেদনা বহন করুক

০৫

যাদের জমি যাদের বন আর যাদের ভূমি
জল জঙ্গল জান ও জবান
আমরা কেন বন্ধ রাখবো

কয়েকজন সিভিল মদখোর যে সিদ্বান্ত নেবে
তা কোন নতুন পৃথিবীর সিদ্বান্ত হতে পারে না

আমরাই বুক পেতে দেব
আমাদের বুক মাড়িয়ে
আমাদের রক্তের উপর দিয়ে
নিয়ে যাও এই বন এই তপোমন

আমরা বেঁচে থাকতে তা হতে দেব না হতে দেব না হতে দেব না

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।