৬ অক্টোবর বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচন

ক্রীড়া ডেস্ক : চলতি মাসেই শেষ হবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) বর্তমান পরিচালনা পর্ষদের মেয়াদকাল। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ৪৫ দিনের মধ্যেই শেষ করতে হবে নির্বাচন প্রক্রিয়া।

মঙ্গলবার ক্রিকেট বোর্ডের একটি সূত্রে জানা যায়, আগামী ৬ অক্টোবর বিসিবির নির্বাচন। তিন ক্যাটাগারিতে নির্বাচিত হবেন ২৩জন পরিচালক। এবার ভোটাধিকার প্রয়োগ করার সুযোগ পেয়েছেন ১৭৪ কাউন্সিলর।

সোমবার ছিল কাউন্সিলর ফর্ম জমা দেওয়ার শেষ দিন। তবে নির্বাচনে কাউন্সিলর/প্রতিনিধির নাম পাঠায়নি তিন সংস্থা। মঙ্গলবার বোর্ডের ১২তম সাধারণ সভা শেষে নিজেই জানিয়েছেন বর্তমান সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

ভোট দিতে না চাওয়াদের তালিকায় আছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম। বাকি দুই কাউন্সিলর বা ভোটের হলো; মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক বোর্ড বরিশাল এবং প্রথম বিভাগ ক্রিকেট লিগের দল অগ্রণী ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব।

তাই ১৭১ জন কাউন্সিলরের মধ্যে থেকে মনোনয়নপত্র জমা দেবেন বিসিবি পরিচালক হতে আগ্রহীরা। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের পর সেখান থেকেই নির্বাচিত হয়ে আসবেন বিসিবির ২৩ জন পরিচালক। যারা পরবর্তী চার বছর দায়িত্ব পালন করবেন।

যে ৭১ জন ভোটার হতে চেয়ে কাউন্সিলর ফর্ম জমা দিয়েছেন, তাদের মধ্যে এবার নতুন মুখ ৫৪ জন। যেখানে বড় নাম রাজশাহী ক্রীড়া সংস্থা থেকে আসা খালেদ মাসুদ পাইলট। গুঞ্জন আছে এবার পরিচালকের চেয়ারেও বসতে পারেন সাবেক এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

কাউন্সিলর ফর্ম জমা দেওয়া বিসিবি মনোনিত সাবেক দশ ক্রিকেটার হলেন- খন্দকার রাজিন সালেহ, সাজ্জাদ আহমেদ মনসুর, সেলিম শাহেদ, খালেদ মাহমুদ সুজন, হান্নান সরকার, আজম ইকবাল, এ কে এম আহসান উল্লাহ, নাফিস ইকবাল খান, ফয়সাল হোসেন ডিকেন্স ও আব্দুর রাজ্জাক।

বিসিবি সভাপতি মনোনীত জাতীয় দলের সাবেক পাঁচ অধিনায়ক হলেন- এ এস এম রকিবুল হাসান, শফিকুল হক হীরা, মিনহাজুল আবেদীন নান্নু, ফারুক আহমেদ ও কাজী হাবিবুল বাশার সুমন।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।