মুহিবুল্লাহ হত্যা: সন্দেহভাজন আরো ২ রোহিঙ্গা আটক

মুহিবুল্লাহ । -ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্ক : নিজ দেশ মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার উখিয়া-টেকনাফে আশ্রয় নেওয়া নিপীড়িত রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের শীর্ষ নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যার ঘটনায় আরো দুই সন্দেহভাজনকে আটক করেছে ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)।

আজ শনিবার (২ অক্টোবর) ভোরে এপিবিএনের একটি দল উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে।

আটকদের নাম জিয়াউর রহমান ও আব্দুস সালাম। তারা দুইজনই রোহিঙ্গা। রাতেই তাদেরকে উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ নিয়ে মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ডে এ পর্যন্ত তিনজনকে আটক করা হয়েছে। এর আগে গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে চাঞ্চল্যকর এ হত্যার ঘটনায় মোহাম্মদ সেলিম ওরফে লম্বা সেলিমকে আটক করে এপিবিএন। পরে তাকে উখিয়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

১৪ এপিবিএন’র পুলিশ সুপার নাঈমুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দুই রোহিঙ্গাকে আটকের পর মামলার বাদী হাবিবুল্লাহ আটকদের শনাক্ত করেন। আজ সকালে তাদেরকে উখিয়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহমেদ সনজুর মোরশেদও এসব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, গত বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস এর চেয়ারম্যান ও রোহিঙ্গাদের নেতা মুহিবুল্লাহকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার রাতে রোহিঙ্গা নেতা মুহিববুল্লাহ হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহতের ভাই হাবিব উল্লাহ বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।