রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবারো ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশংকা

ফাইল ছবি

সংবাদদাতা : কক্সবাজারের উখিয়ার শফিউল্লাহ কাটা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় চার শতাধিক ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে অগ্নিকাণ্ডে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশংকা করা হচ্ছে। স্থানীয়দের পাশাপাশি ফায়ার সার্ভিসের দশটি ইউনিটের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

রবিবার বিকেল ৫টার  দিকে উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের শফিউল্লাহ কাটা এলাকার ১৬ নম্বর রোহিঙ্গা শিবিরের বি ব্লকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়। কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন
সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টা নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ইতিমধ্যে চার শতাধিক ঝুঁপড়ি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ঘটনাস্থল থেকে রোহিঙ্গা নেতা আবদুর রহিম জানান, ফায়ার সার্ভিস ও রোহিঙ্গাদের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।
রোহিঙ্গা শিবিরে দায়িত্বরত ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. কামরান হোসেন বলেন, মোহাম্মদ আলীর (৩৫) ঘরের গ্যাসের চুলার মাধ্যমে আগুনের সুত্রপাত হয় বলে প্রাথমিকভাবে জানা যায়।
এর আগে উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এটি দ্বিতীয় অগ্নিকান্ডের ঘটনা, এর আগে গত ২ জানুয়ারি (রবিবার) উখিয়ার ২০ এক্সটেনশন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে একটি করোনা আইসোলেশন সেন্টারে আগুন লাগে। সে ঘটনায় হতাহত না হলেও পুড়ে যায় হাসপাতালটির ৭০ শয্যা, হয় ৮ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি। তারও আগে গত বছরের ২২ মার্চ উখিয়ার তিনটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্মরণকালের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। যে ঘটনায় প্রায় দশ হাজারের বেশি ঘর পুড়ে যায়, ক্ষতিগ্রস্ত হয় দুই লক্ষাধিক রোহিঙ্গা এবং ঘটে ১১ জনের প্রাণহানি।
রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।