উখিয়ায় ৭৮ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কালো ব্যাজ পড়ে শিক্ষকদের প্রতিবাদ

শাকিলা মনছুরের মৃত্যুতে উখিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা কালো ব্যাজ পরিধান করে শোক ও প্রতিবাদ জানান। ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজার সদরের সাহিত্যিকা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেলিনা আকতারের মানসিক নির্যাতনে সহকারী শিক্ষকের মৃত্যুর ঘটনায় প্রতিবাদে সোমবার (২৯ আগস্ট) সকালে উখিয়া উখিয়া উপজেলার ৭৮ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কালো ব্যাজ পরিধানপূর্বক শোক প্রকাশ ও নিন্দা জানিয়েছেন সহকারি শিক্ষকগণ ও উখিয়া উপজেলা শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দরা।

শাকিলা মনছুরের মৃত্যুতে কুতুপালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা কালো ব্যাজ পরিধান করে শোক ও প্রতিবাদ জানান। ছবি: সংগৃহীত

নিহত সহকারী শিক্ষিকা শাকিলা মনছুর এর মৃত্যুর বিষয়টি সঠিক তদন্ত পূর্বক দোষীদের আইনের আওতায় আনার অনুরোধ করেছেন উখিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক ও উপজেলা শিক্ষক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ জাহান।

তিনি জানান, ঘটনার দিন ২২ আগস্ট (সোমবার) শাকিলা মনছুর সকাল ১০টার দিকে স্কুলে হাজিরা দিয়ে প্রধান শিক্ষক সেলিনা আক্তারের কাছ থেকে ভোটার কার্যক্রমের শেষ দিনের কাজ বুঝিয়ে দিতে বাইরে যাওয়ার অনুমতি চান। সেলিনা তার আবেদন গ্রাহ্য না করে ক্লাস নেওয়ার নির্দেশ দেন। তাঁর কথার প্রেক্ষিতে ভোটার ফরম জমা দেয়ার যৌক্তিকতা তুলে ধরেন শাকিলা।

এমতাবস্থায় প্রধান শিক্ষক শাকিলাকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল দিতে থাকেন। ঘটনার এক পর্যায়ে শাকিলা এরুপ আচরণ সহ্য করতে না পেরে স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতির ঘরে বিচার চাইতে যান। সভাপতির ঘরে ঢোকার আগে গেইটে মাটিতে পড়ে যান তিনি। সভাপতির স্ত্রী এসে শাকিলাকে ধরাধরি করে ঘরে নিয়ে সেবা শশ্রুষা দেন। তখন শাকিলা বলেন, প্রধান শিক্ষক তাকে খুব খারাপ ভাবে গালাগাল দিয়েছে, তার সহ্য করতে না পেরে স্কুল থেকে বেরিয়ে এসেছেন তিনি। কথা বলার একপর্যায়ে শাকিলা আবারও জ্ঞান হারান। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ মৃত্যুর ঘটনায় গত মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. সাইফুর রহমানকে প্রধান করে দুই সহকারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. বেলাল হোছাইন এবং মো. হানিফ মিয়াকে নিয়ে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষিকা সেলিনা আকতারের বিষয়ে শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, তদন্তে প্রমাণিত হলে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

রাইজিংকক্স.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।